Health

দেশে প্রথম পর্যায়ে কত টিকা প্রদান, জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে প্রথম পর্যায়ে টিকা প্রদান কর্মসূচি চালু হতে চলেছে। তাতে প্রথমে সামনের সারির কর্মীদের টিকা প্রদান করা হবে। এমনই জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

নয়াদিল্লি : দেশে শনিবার ছিল করোনা প্রতিষেধক টিকার ড্রাই রান। এদিন বিভিন্ন জায়গায় ট্রায়াল রানের মত করোনা প্রতিষেধ টিকা প্রদান করা হয়।

কলকাতার দত্তাবাদের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মীকে এই টিকা প্রদান করা হয়। তাঁরা সকলেই সুস্থ অনুভব করেছেন। টিকা প্রদানের পর তাঁদের বেশ কিছুটা সময় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়।

কারও কোনও সমস্যা হয়নি বলেই জানা গেছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজেরাও সুস্থ আছেন বলেই জানান। এভাবেই দেশের অন্যান্য প্রান্তেও টিকাকরণ হয়।

জানুয়ারি পড়ার পর থেকেই দেশে করোনা টিকা প্রদানের তোড়জোড় চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। জানুয়ারির প্রথম দিনেই অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা এ দেশে অনুমোদন পেয়েছে। আপাতত জরুরি ভিত্তিতে তা ব্যবহার করা হতে পারে।

এদিন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন জানিয়েছেন, দেশে প্রথম পর্যায়ে ৩ কোটি মানুষকে টিকা প্রদান করা হবে। এঁরা প্রত্যেকেই স্বাস্থ্যকর্মী ও সামনের সারির কর্মী। যে তালিকায় পুলিশও পড়ছে। ভাগটা হল ১ কোটি স্বাস্থ্যকর্মী এবং ২ কোটি সামনের সারির কর্মীকে টিকা প্রদান করা হবে।

এর আগেই স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন যে দেশে জুলাই মাসের মধ্যে ৩০ কোটি মানুষকে টিকাকরণ করা হবে। এদিন ৩ কোটি মানুষকে প্রথম পর্যায়ে টিকাকরণের কথা জানিয়েছেন তিনি। বাকি ২৭ কোটি কাদের টিকা প্রদান করা হবে তা স্থির করার কাজ চলছে। ফলে ভারতের ৩০ কোটি মানুষ জুলাইয়ের মধ্যে টিকা পেতে চলেছেন।

এদিনই আবার দিল্লির কেজরিওয়াল সরকার ঘোষণা করেছে দিল্লির সকলকে বিনামূল্যে করোনা প্রতিষেধক টিকা প্রদান করা হবে। ফলে দিল্লির বাসিন্দারা বিনামূল্যেই টিকা পেতে চলেছেন।

অন্যদিকে দেশে তৈরি টিকা কোভ্যাক্সিন-এর চূড়ান্ত রিপোর্ট খতিয়ে দেখার কাজ শুরু হয়েছে। সরকারের তৈরি বিশেষজ্ঞদের প্যানেলের তরফে ছাড়পত্র দিয়েও দেওয়া হয়েছে।

তবে ডিজিসিআই-এর অনুমোদন এখনও বাকি রয়েছে। ডিজিসিআই অনুমোদন দিলেই দেশে কোভ্যাক্সিন টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হয়ে যাবে। তখন ভারতে ২টি টিকা কাজে আসবে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button