World

পথ দেখাল সামুদ্রিক প্রাণি, জলের তলায় মিলল হারানো বিয়ের আংটি

৬ মাস আগে সমুদ্রে তলিয়ে গিয়েছিল বিয়ের আংটি। অনেক খুঁজেও পাওয়া যায়নি। সেই আংটি ৬ মাস পর খুঁজে দিল একটি সামুদ্রিক প্রাণি।

বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে স্কুবা ডাইভিং-এ জলের তলায় আনন্দে ঘুরেছিলেন এক যুবক। সে সময় জলের তলায় ডুব দিয়ে ঘোরার সময় কোনওভাবে তাঁর আঙুল থেকে বিয়ের আংটিটা খুলে পড়ে যায়।

জল থেকে ওঠার পর বিষয়টি নজরে আসতে শুরু হয় খোঁজ। সমুদ্রের ধার তো বটেই এমনকি জলের তলাতেও খুঁজে দেখা হয়। কিন্তু সে আংটি আর পাওয়া যায়নি।

বিয়ের আংটি বলে কথা! স্ত্রীর কাছে এজন্য যথেষ্ট কথা শুনতে হয় জেমস রসকে। এরপর কেটে গেছে ৬ মাস। নবদম্পতি বেড়ানো সেরে বাড়িও ফিরে এসেছেন। আংটি কিন্তু পাওয়া যায়নি।

এই ঘটনার ৬ মাস পর ব্রিটেনের অধীনে থাকা ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের কেম্যান দ্বীপে হাজির হন রাকেল টোবিয়ান। তিনি স্কুবা ডাইভ করে জলে নামেন। জলের তলায় ঘোরার সময় স্কুইড নামে একটি সামুদ্রিক প্রাণির পিছু নিয়েছিলেন তিনি।

স্কুইডটি টোবিয়ানকে নিয়ে গিয়ে হাজির করে সমুদ্রের এমন একটি জায়গায় যেখানে পৌঁছনোর পর তিনি জলের তলায় বালির ওপর কিছু পড়ে থাকতে দেখেন। কাছে গিয়ে দেখেন সেটি একটি আংটি। তুলে নেন টোবিয়ান।

টোবিয়ান সেই আংটির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেন। আর মাত্র ২ ঘণ্টার মধ্যে সেই ছবি শেয়ার হতে হতে পৌঁছে যায় রস-এর কাছেও।

রস ছবিটি দেখে নিজের আংটি চিনতে পারেন। সময় নষ্ট না করে রস ও তাঁর স্ত্রী হাজির হন টোবিয়ানের কাছে। তারপর আংটি যে তাঁর তা প্রমাণ করে আংটি ফেরত পান।

জেমস রস ও তাঁর স্ত্রী ক্রিস্টি ভাবতেও পারেননি ৬ মাস পর সমুদ্রে হারিয়ে যাওয়া আংটি ফের তাঁদের কাছে ফেরত আসবে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.