Health

অকাল মৃত্যু এড়াতে দিনের ১১ মিনিটই যথেষ্ট, হদিশ দিলেন গবেষকেরা

অনেকেই অকাল মৃত্যুর শিকার হন। এমন প্রায়ই শোনা যায় কম বয়সেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কথা। তা এড়ানো যেতে পারে। এজন্য দিনে ১১টি মিনিট যথেষ্ট।

মানুষ এখন ব্যস্ত। কর্মব্যস্ততার ফাঁকে সময় বার করাটাই এখন চ্যালেঞ্জ। পরিবারের জন্য সময়, নিজের জন্য সময়, এমনকি শরীরচর্চার জন্য সময় বার করতেও হিমসিম খাচ্ছেন অনেকে।

সময় এখন বড়ই দামি। তবে তার মধ্যে থেকে ১১ মিনিট বার করতে পারলে অকাল মৃত্যুকে দূরে রাখা সম্ভব বলে মনে করছেন কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা।

এটা বলা হয় যে শরীর সুস্থ রাখতে শরীরচর্চার প্রয়োজন। সেই শরীরচর্চা হাঁটাও হতে পারে, নাচাও হতে পারে, টেনিস খেলাও হতে পারে, সাঁতারও হতে পারে। এগুলির জন্য জিমে যেতে হয়না।

দিনের যে কোনও সময় এটি করা সম্ভব। বিশেষত হাঁটা তো যখন তখন করা যেতে পারে। আচমকা হার্ট অ্যাটাক বা মারণ হৃদরোগ এড়াতে বলা হয় সপ্তাহে একজন মানুষের ১৫০ মিনিট শরীরচর্চা করা উচিত।

তার মানে দাঁড়াচ্ছে দিনে প্রায় ২২ মিনিট শরীরচর্চা বা কায়িক পরিশ্রম করা। কিন্তু সেই সময়টাও অনেকের পক্ষে দেওয়া সম্ভব হয়না। সেক্ষেত্রে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা জানাচ্ছেন, অতটা সময় দেওয়া যদি নাও সম্ভব হয় তাহলে দিনে অন্তত ১১ মিনিট দিলেই হবে।

অর্থাৎ সপ্তাহে ৭৭ মিনিট দিতে হবে। যা দেওয়াটা অতি ব্যস্ত মানুষের পক্ষেও সম্ভব। অন্তত নিজের আগাম মৃত্যু সম্ভাবনা এড়ানোর জন্যও সম্ভব। এই ১১ মিনিটে কিছু না পারলে হনহন করে হাঁটার পরামর্শ দিচ্ছেন গবেষকেরা। তাতেই এড়ানো যাবে অকাল মৃত্যুর সম্ভাবনা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

News Desk

নীলকণ্ঠে যে খবর প্রতিদিন পরিবেশন করা হচ্ছে তা একটি সম্মিলিত কর্মযজ্ঞ। পাঠক পাঠিকার কাছে সঠিক ও তথ্যপূর্ণ খবর পৌঁছে দেওয়ার দায়বদ্ধতা থেকে নীলকণ্ঠের একাধিক বিভাগ প্রতিনিয়ত কাজ করে চলেছে। সাংবাদিকরা খবর সংগ্রহ করছেন। সেই খবর নিউজ ডেস্কে কর্মরতরা ভাষা দিয়ে সাজিয়ে দিচ্ছেন। খবরটিকে সুপাঠ্য করে তুলছেন তাঁরা। রাস্তায় ঘুরে স্পট থেকে ছবি তুলে আনছেন চিত্রগ্রাহকরা। সেই ছবি প্রাসঙ্গিক খবরের সঙ্গে ব্যবহার হচ্ছে। যা নিখুঁতভাবে পরিবেশিত হচ্ছে ফোটো এডিটিং বিভাগে কর্মরত ফোটো এডিটরদের পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে। নীলকণ্ঠ.in-এর খবর, আর্টিকেল ও ছবি সংস্থার প্রধান সম্পাদক কামাখ্যাপ্রসাদ লাহার দ্বারা নিখুঁত ভাবে যাচাই করবার পরই প্রকাশিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *