Entertainment

ইচ্ছে না থাকলেও করতে হত, নাহলে সকালে খেতে পেতেন না টার্মিনেটর আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার

ইচ্ছা থাক বা না থাক, তাঁকে একটা কাজ করতে হত। সেটা না করলে কপালে ব্রেকফাস্টটা জুটত না তাঁর। সে কাহিনি শোনালেন টার্মিনেটর আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার।

তিনি পৃথিবী বিখ্যাত নায়ক। সিলভেস্টার স্ট্যালোন এবং আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার, এই ২ হলিউড তারকাকে মানুষ শুধু হিরো হিসাবে নয়, তাঁদের পেশীবহুল চেহারার জন্য চিরদিন মনে রাখবেন।

টার্মিনেটর সহ অনেক সুপারহিট সিনেমায় অভিনয় করা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার এখন ৭৫ বছরে পা দিয়েছেন। কিন্তু এই বয়সেও তাঁর দেহ সুঠাম। এখনও নিয়মিত ব্যায়াম করে যান তিনি। সেই শোয়ার্জনেগার এবার তাঁর জীবনের এক অজানা অধ্যায়ের কথা জানালেন।

আর্নল্ড বলেন, তিনি যে খুব নিয়মানুবর্তী ছিলেন এমনটা নয়। সেটা ব্যায়ামের ক্ষেত্রেও। তাই তিনি যখন খুব ছোট তখন তাঁর বাবা সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, তাঁকে ব্রেকফাস্টটা অর্জন করে নিতে হবে। নচেৎ তা মিলবে না। ব্রেকফাস্ট না করেই কাটাতে হবে।

এই অর্জন করতে তাঁকে কি করতে হবে? তাঁর বাবা সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন এজন্য তাঁকে ২০০টি করে সিটআপ এবং পুশআপ করতে হবে। সকালে উঠে এগুলি না করলে সেদিন ব্রেকফাস্ট বন্ধ।


আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে কিন্তু প্রথমে একজন বডি বিল্ডার ছিলেন। অনেক পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। তারপর তিনি সিনেমার জগতে প্রবেশ করেন।

এখনও শোয়ার্জনেগার প্রতিদিন ব্যায়াম করেন। ছোট থেকে একই ব্যায়াম করতে করতে এখন প্রতিদিন সেটা করা একটা অভ্যাসেও পরিণত হয়েছে। জলভাতও হয়ে গেছে কাজটা। শোয়ার্জনেগার জানান, এই বয়সেও শরীরচর্চা তাঁকে একটা দারুণ সুন্দর অনুভূতি দেয়। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button