Thursday , May 23 2019
Amit Shah
মালদহের হবিবপুরে জনসভায় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, ছবি - আইএএনএস

পঞ্চায়েতের মত করে ভোট হবে না লোকসভায়, জানিয়ে গেলেন অমিত শাহ

ব্রিগেড বাতিল হয়েছে। তবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সভা করবে বিজেপি। সেকথা আগেই জানিয়ে দিয়েছিল বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। সেইমত এদিন মালদহের হবিবপুরে জনসভা করলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। সোয়াইন ফ্লুয়ে আক্রান্ত অমিত শাহ গত রবিবারই দিল্লির এইমস থেকে ছাড়া পেয়েছেন। মঙ্গলবার তিনি সভা করলেন মালদহে। এদিন বাগডোগরা বিমানবন্দরে নামেন তিনি। হবিবপুরের সভা থেকেই এদিন রাজ্যে লোকসভার প্রচার শুরু করে দিলেন বিজেপি সভাপতি।

সিন্ডিকেট রাজ থেকে ব্রিগেডের সভা সবকিছু নিয়েই এদিন কটাক্ষ করেন অমিত শাহ। রাজ্যের তৃণমূল সরকারের ঘটি উল্টে দিতে এসেছেন তিনি বলে হুঁশিয়ারি দেন অমিত শাহ। ব্রিগেডের সভাকে স্বার্থের জোট বলে কটাক্ষ করেন তিনি। কড়া ভাষায় আক্রমণ করে অমিত শাহ বলেন, ব্রিগেডে সকলে মোদী মোদী করলেও কেউ বন্দেমাতরম বলেননি। ব্রিগেডে সারি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বসেছিলেন বলেও কটাক্ষ ঝরে পড়ে তাঁর গলা থেকে। এদিন অমিত শাহ খতিয়ান তুলেও খোঁচা দিয়েছেন। তাঁর দাবি, ব্রিগেডে ইউপিএ সরকারের নেতৃত্বে থাকা কংগ্রেস সহ শরিক দলগুলিকে ডেকেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু ইউপিএ সরকার এ রাজ্যকে তাদের শেষ ৫ বছরের রাজত্বে দিয়েছে ১.৩২ লক্ষ কোটি টাকা। সেখানে মোদী সরকার রাজ্যকে দিয়েছে ৩.৯৫ লক্ষ কোটি টাকা।

অমিত শাহ বলেন, লোকসভা নির্বাচন পঞ্চায়েত নির্বাচনের মত হবে না। এখানে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট হবে। সব বুথে থাকবেন নির্বাচন কমিশনের লোক। পাশাপাশি অমিত শাহের দাবি, স্বাধীনতার পর দেশের জাতীয় উৎপাদনের ২৭ শতাংশ দিত পশ্চিমবঙ্গ। এখন তা নেমে দাঁড়িয়েছে ৩.৩ শতাংশে।

অমিত শাহ সকলের কাছে আবেদন জানান বিজেপিকে যেন সকলে কমপক্ষে ২৩টি আসনে জয়ী করেন। মমতা সরকারকে উৎখাতের ডাক দিয়ে বিজেপি সভাপতি এদিন নাগরিকত্ব বিষয়টি উত্থাপন করেন। তাঁর দাবি, যেসব হিন্দু বাংলাদেশ থেকে এখানে আসছেন তাঁদের নাগরিকত্ব নিয়ে সমস্যা হবে না। কেন্দ্র আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্য বীমার মাধ্যমে ৫ লক্ষ টাকার বীমার সুযোগ দিতে চাইছে তা থেকে বাংলার মানুষকে বঞ্চিত করা হবে কেন সে প্রশ্ন তোলেন অমিত শাহ। প্রসঙ্গত এ রাজ্যে আয়ুষ্মান ভারত দরকার নেই বলে জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কর্মসংস্থান নিয়ে খোঁচা দিয়ে অমিত শাহ জানান, আগে ভারতের মধ্যে ৩২ শতাংশ চাকরি বাংলায় তৈরি হত। এখন তা নেমে দাঁড়িয়েছে ৪ শতাংশে। রাজ্যে বেকারদের বাহিনী তৈরি হয়েছে বলে কটাক্ষ করেন অমিত শাহ।

(সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *