State

রাজ্যের উত্তরে বেড়াতে গিয়ে ঘরবন্দি পর্যটকেরা, গরম পোশাক ভরসা স্থানীয়দের

দক্ষিণবঙ্গে যখন গরমে গলদঘর্ম অবস্থা তখন উত্তরে বেড়াতে চলে যান অনেকে। কিন্তু সেখানে গিয়ে কার্যত ঘরবন্দি অবস্থায় রয়েছেন তাঁরা। গরম পোশাকের ভরসায় রয়েছেন স্থানীয়রা।

গরমকালে দার্জিলিং, কালিম্পংয়ে কটা দিনের জন্য বেড়িয়ে আসার একটা প্রবণতা বাঙালিদের মধ্যে অনেকদিনের। ফলে পাহাড়ে এখন বেজায় ভিড়। একটা হোটেলও ফাঁকা নেই।

গত ২ বছরে এই সময়টায় পাহাড়ে যাওয়া কার্যত সম্ভব হয়নি পর্যটকদের। ফলে এ বছর তাঁরা চুটিয়ে বেড়িয়ে পড়েছেন পাহাড়ের কোলে মনোরম আবহাওয়ায় প্রাণটা জুড়িয়ে নিতে।

হোটেল মালিকরাও এতে খুশি। বাজার দারুণ জমে ওঠায় গত ২ বছরের শোক ভুলতে চাইছেন তাঁরা। কিন্তু সেখানেই বাধ সেধেছে বৃষ্টি।

দার্জিলিং, কালিম্পং সহ উত্তরবঙ্গ জুড়েই বৃষ্টি হচ্ছে। এতটাই বৃষ্টি হচ্ছে যে কার্যত সেখানে গিয়ে ঘোরাঘুরি লাটে উঠেছে পর্যটকদের। সারাদিন টানা বৃষ্টিতে ঠায় হোটেলের ঘরে কাটাতে হচ্ছে তাঁদের।

এদিকে উত্তরবঙ্গ জুড়েই বৃষ্টি হচ্ছে। এপ্রিলে যখন দক্ষিণবঙ্গ পুড়ছিল, তখনও উত্তরবঙ্গ ভাল বৃষ্টি পেয়েছে। এখনও পাচ্ছে। এখন বৃষ্টি এতটাই হচ্ছে যে পাহাড় তো বটেই, এমনকি সমতলের মানুষও গরম পোশাকে শরীর মুড়তে বাধ্য হচ্ছেন।

সোয়াটার থেকে শাল বা জ্যাকেট, সবই এই বৈশাখ মাসে গায়ে চড়ছে। রাতে শুতে গেলেও গায়ে মোটা ঢাকার প্রয়োজন পড়ছে।

আবহাওয়া দফতর আগামী ৬ মে পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের সব জেলায় বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে। ফলে উত্তরে বৃষ্টি চলবে। কিন্তু এই বৃষ্টিতে মাথায় হাত পড়েছে পর্যটকদের।

সমস্যায় পড়েছেন স্থানীয় দোকানিরাও। ভরা মরসুমে এই বৃষ্টি কাঁটা তাঁদের ব্যবসাকে কিছুটা হলেও ধাক্কা দিচ্ছে বলে মেনে নিচ্ছেন বিক্রেতারা।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.