State

ইভিএম বিকল, ছোটখাটো অশান্তি বাদে প্রথম দফা শান্তিতেই

রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দফা কাটল মোটের ওপর শান্তিতেই। তবে শতাধিক ইভিএম বিকলের খবর মিলেছে। হেনস্থার শিকার হয়েছেন শালবনির বাম প্রার্থী।

কলকাতা : রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দফার ভোটগ্রহণ পর্ব মিটল শান্তিতেই। সন্ধে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ভোট চলে প্রথম দফার ৩০টি আসনের সব বুথে। এদিন বড় কোনও ঘটনার খবর না মিললেও সকাল থেকে ছোটখাটো উত্তেজনার খবর আসে।

সকালে শালবনির বাম-কংগ্রেস জোট প্রার্থী সুশান্ত ঘোষ একটি বুথের সামনে হেনস্থার শিকার হন। তাঁকে ধাক্কা মারা হয়। তেড়ে আসে কয়েকজন যুবক। পুলিশ সুশান্তবাবুকে গাড়িতে তুলে দেয়।

এরপর তাঁর গাড়ি ধাওয়া করে ওই যুবকরা। সুশান্তবাবু বিষয়টি পুলিশে জানান। এই ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা যুক্ত বলে অভিযোগ। ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

কাঁথি বিধানসভা কেন্দ্রের সাবাজপুটে একটি বুথের কাছে এদিন ভাঙচুর হয় বিজেপি নেতা সৌম্যেন্দু অধিকারীর গাড়ি। সৌম্যেন্দুবাবুর অভিযোগ তাঁর গাড়িতে তৃণমূলকর্মীরা হামলা চালান। যদিও তৃণমূল তা অস্বীকার করে। তৃণমূলের পাল্টা দাবি, সৌম্যেন্দু অধিকারীর গাড়ি ভেঙেছেন ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দারা।

এদিন একটি ভিডিও প্রকাশ করেন তৃণমূল নেত্রী শশী পাঁজা। তিনি দাবি করেন বুথের কাছেই অস্ত্র নিয়ে ঘুরছে বিজেপি কর্মীরা। কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও এমনটা কীভাবে সম্ভব বলে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

এদিন ভোট চলাকালীন একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ করে হৈচৈ ফেলে দেয় বিজেপি। যাতে শোনা যাচ্ছে ২ জনের গলা। বিজেপির দাবি একটি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, অন্যটি পশ্চিম মেদিনীপুরের বিজেপি নেতা প্রলয় পালের। যদিও ওই অডিও ক্লিপের সত্যতা এখনও স্পষ্ট হয়নি।

তবে বিজেপির দাবি, মুখ্যমন্ত্রী ওই ফোন করেছিলেন কারণ তিনি দেউলিয়া হয়ে গেছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওই ফোনে ভোট ভিক্ষা করেছেন বলেও দাবি করেছেন বিজেপি নেতারা।

যদিও তৃণমূলের পাল্টা দাবি, যদি ওই ক্লিপ সত্যি হয়ও তাহলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া এক অভিমানী নেতার মান ভাঙানোর চেষ্টা করেছেন মাত্র।

এদিন ভোটে আরও একটি বড় সমস্যা যা সামনে এসেছে, যা ভোটারদের হয়রানিরও কারণ হয়েছে তা হল শতাধিক ইভিএম বিকল হওয়া। যা সারাতে দীর্ঘ সময় কাটে। ফলে ততক্ষণ ভোট বন্ধ থাকে। লাইনে দাঁড়িয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন অনেক ভোটদাতা।

এদিকে এদিন দক্ষিণ কাঁথি বিধানসভার একটি বুথে ভোটাররাই অভিযোগ করেন কেউ তৃণমূলে ভোট দিলেও তা গিয়ে পড়ছে বিজেপিতে। ক্ষোভ চরমে ওঠে। দ্রুত ভোট পর্যবেক্ষক পৌঁছন সেখানে। পরে ভিভিপ্যাট বদলে দেওয়া হয়। তারপর শুরু হয় ভোট। এদিন কয়েক জায়গা থেকে ভোট চলাকালীন হাতাহাতিরও খবর মেলে।

Show More
Back to top button