SciTech

জীবজগতে নতুন বিস্ময়, মিলল অদ্ভুত প্রাণির খোঁজ

এমন প্রাণির কথা এর আগে কেউ শোনেননি। কোনও প্রাণি হয় পুরুষ হয় অথবা স্ত্রী। এই পতঙ্গে বিরাজ করছে স্ত্রী ও পুরুষ উভয়েই।

একই দেহে নারী ও পুরুষ উভয়ের অবস্থান এর আগে দেখা যায়নি। এই প্রথম বিশ্বে এমন একটি প্রাণির দেখা মিলল। প্রাণিটি একটি পতঙ্গ। তার নাম করণ হয়েছে চার্লি।

চার্লি এমন এক পতঙ্গ যার দেহের অর্ধেকটা স্ত্রী ও বাকি অর্ধেকটা পুরুষ। স্টিক ইনসেক্ট গোত্রের মধ্যে পড়ছে এই চার্লি। তবে চার্লি প্রকৃতির বুকে আচমকা তৈরি হয়নি।

লরেন গারফিল্ড নামে এক গবেষক স্টিক ইনসেক্টের শঙ্কর তৈরি করতে গিয়ে আচমকাই জন্ম নেয় চার্লি। পরীক্ষা করে দেখা যায় এই নতুন রূপের পতঙ্গের দেহে স্ত্রী পুরুষ উভয় অঙ্গই বিরাজ করছে।

চার্লির বিশেষত্ব হল তার দেহের অর্ধেক সবুজ আপেলের মত উজ্জ্বল রঙের স্ত্রীর, বাকি অর্ধেক বাদামি রঙের ডানা যুক্ত পুরুষের। এমন দেহের ২টি ভাগ হয়ে একই অঙ্গে স্ত্রী পুরুষের অবস্থান এই প্রথম দেখা গেল।

লন্ডনের ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়াম নিশ্চিত করেছে যে এমনটা এই প্রথম বিশ্বে দেখা গেল। প্রাণি জগতে এ এক বিস্ময়। আপাতত চার্লিকে গবেষণার প্রয়োজনে দান করেছেন লরেন।

কারণ তাকে গবেষণা করে দেখার আগেই যদি তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয় তাহলে পতঙ্গ জাতীয় প্রাণি দ্রুত কুঁচকে যায়। যা গবেষণার কাজে সমস্যা তৈরি করবে। তাই চার্লির জীবদ্দশাতেই তাকে পরীক্ষা করতে চাইছেন গবেষকেরা।

লরেন জানিয়েছেন চার্লিকে গবেষণার জন্য দিয়ে দিতে তাঁর মন চাইছিল না। তবে চার্লি এখন পূর্ণাঙ্গ। ফলে তা মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রসঙ্গত পতঙ্গ জাতীয় প্রাণিরা খুব বেশি হলে ১ বছর বাঁচে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *