Lifestyle

একা ছাড়ার উপায় নেই, বর ঘরে না থাকলেই নববধূকে চুমু খেয়ে যান পুরুষ অতিথিরা

নববধূকে বিয়ের দিন একা এক মুহুর্তও রাখা যায়না। তাহলেই বিয়েতে আগত পুরুষ অতিথিরা তাঁকে ঘিরে ধরে চুম্বন শুরু করেন। এও নাকি এক প্রথা।

বিয়েতে অতিথিরা আসবেন। তাঁদের আপ্যায়ন করা হবে। সকলে আনন্দ করবেন। বরবধূকে শুভেচ্ছা জানাবেন। তারপর ফিরে যাবেন যে যাঁর বাড়ি। নবদম্পতি শুরু করবেন এক নতুন জীবন। সারা বিশ্বেই এভাবে শেষ হয় বিয়ের পর্ব।

সুইডেনেও বিয়ের দিন অতিথিরা হাজির হন একে একে। বরবধূ একসঙ্গে একটি ঘরে থাকেন। যেখানে সকলে গিয়ে দেখা করেন। শুভেচ্ছা জানান।

এই পর্যন্ত পুরো বিষয়টাই চেনা। কিন্তু সুইডেনে সমস্যা হল অতিথি আপ্যায়নের সময় বরবধূকে একা ঘরে রেখে মুহুর্তের জন্যও কোথাও যেতে পারেননা।

আর যদি যান তাহলে কিন্তু বিপদ। কারণ বর ঘর ছাড়লেই পুরুষ অতিথিরা ঘরে ঢুকে নববধূকে চুম্বনে ভরিয়ে দেন।

পুরুষ অতিথিদের ওই চুম্বন থেকে নববধূকে বাঁচাতে বর কোনও কারণেও ঘর থেকে বার হতে রাজি থাকেন না। বাথরুম যাওয়ার হলেও নয়।

অবশ্য এই রীতি এক তরফা নয়। নববধূও কিন্তু ঘরে বরকে একা ফেলে ঘর থেকে বার হতে পারেননা। বার হলেই বিপদ। তখন উল্টোটা হয়।

মহিলা অতিথিরা তখন ঘরে ঢুকে নতুন বরকে চুম্বনে চুম্বনে ভরিয়ে দেন। ফলে নববধূও স্বামীকে একা রেখে ঘর থেকে বার হতে চান না। বাথরুমেও নয়।

এই রীতি কিন্তু আজও সুইডেনে হাসি মজার মধ্যে দিয়েই পালিত হয়। ওইদিন অতিথিরা না যাওয়া পর্যন্ত বরবধূ একসঙ্গেই থাকেন ঘরে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.