Entertainment

সুন্দরী প্রতিযোগিতার মঞ্চে ২ সেরা সুন্দরীর চুলোচুলি

সুন্দরী প্রতিযোগিতার মঞ্চে সবে ঘোষণা হয়েছে সেরা সুন্দরীর নাম। সেখানে আনন্দঘন মুহুর্ত দেখেই অভ্যস্ত সকলে। কিন্তু সে ধারণাই বদলে দিল স্টেজে ২ সুন্দরীর চুলোচুলি।

কলম্বো : এ বছরের সেরা সুন্দরী কে? তারই বাছাই চলছিল। সুন্দরী প্রতিযোগিতায় তখন মঞ্চে হাতে গোনা সুন্দরী। সেখানেই সেই চরম মুহুর্ত এগিয়ে আসে। ঘোষণা হয় এঁদের মধ্যে সেরা সুন্দরী কে হলেন।

ঘোষণায় যে নামটা উঠে আসে তাঁর মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন তার আগের বছরের সেরা সুন্দরী যিনি হয়েছিলেন তিনি। তিনি এগিয়ে আসেন। সদ্য দেশের সেরা সুন্দরী হওয়া তন্বীকে মুকুটও পরিয়ে দেন। কিন্তু তারপর যা যা ঘটে তার জন্য কেউই প্রস্তুত ছিলেন না।

ঘটনাটি ঘটেছে শ্রীলঙ্কায়। সে দেশের সেরা সুন্দরী বাছাই প্রতিযোগিতায় এবার সেরা সুন্দরী নির্বাচিত হন পুষ্পিকা ডি সিলভা। তাঁকে মুকুট পরিয়ে দেন আগের বছরের সেরা সুন্দরী ক্যারোলিন জুরি। এই পর্যন্ত সব ঠিকঠাক ছিল।

এরপরই আচমকা ক্যারোলিন মাইকে ঘোষণা করেন, এই সুন্দরী প্রতিযোগিতার একটা নিয়ম রয়েছে যে কোনও ডিভোর্স হওয়া নারী এই প্রতিযোগিতায় থাকতে পারবেননা। তাই পুষ্পিকার কাছ থেকে এই মুকুট তিনি নিয়ে নিচ্ছেন।

এই বলে তিনি এগিয়ে যান সদ্য দেশের সেরা সুন্দরী তকমা জেতা পুষ্পিকার দিকে। তারপর তাঁর মাথা থেকে টেনে হিঁচড়ে মুকুট খুলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। তাতে পুষ্পিকার মাথার চুল ঘেঁটে যায়।

পুষ্পিকা মুকুট রক্ষা করার চেষ্টা করলেও তা টেনে হিঁচড়ে খুলে নেন ক্যারোলিন। তারপর তা নিয়ে গিয়ে পরিয়ে দেন প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থান পাওয়া সুন্দরীর মাথায়।

এই ঘটনা দেখে কাঁদতে কাঁদতে স্টেজ ছাড়েন পুষ্পিকা। ঘটনার জেরে প্রবল সমালোচনার ঝড় ওঠে। উদ্যোক্তারা এরপর সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। দ্বিতীয় স্থানাধিকারীর কাছ থেকে মুকুট উদ্ধার করে তা পুষ্পিকাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

অন্যদিকে পুষ্পিকা জানিয়েছেন তাঁর মাথায় এতটাই চোট লাগে মুকুট জোর করে খুলে নেওয়ার সময় যে তাঁকে হাসপাতালে যেতে হয় চিকিৎসার জন্য।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ ক্যারোলিনকে গ্রেফতার করেছে। তবে ক্যারোলিনও পুলিশকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি তাঁর কাজের জন্য অনুতপ্ত নন। তাই পুষ্পিকার কাছে ক্ষমা চাইবেন না।

আবার পুষ্পিকাও পাল্টা জানিয়ে দিয়েছেন বিষয়টি মিটিয়ে তিনি তখনই নেবেন যখন ক্যারোলিন তাঁর কাছে ক্ষমা চাইবেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button