SciTech

অল্পের জন্য রক্ষা, মহাকাশে মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াল ২ স্যাটেলাইট

মহাকাশে একটা মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে ঘটতেও ঘটল না। অল্পের জন্য রক্ষা পেল ২ দেশের কৃত্রিম উপগ্রহ। যার মধ্যে ভারতের একটি উপগ্রহ রয়েছে।

চেন্নাই : মহাকাশে কী কৃত্রিম উপগ্রহ বেড়ে গিয়েছে? ফলে সেখানেও সংঘর্ষের পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে? একটি ঘটনার পর এমন প্রশ্ন তুলছেন অনেক সাধারণ মানুষ।

গত শুক্রবারের ঘটনা। মহাকাশে এখন শয়ে শয়ে উপগ্রহ ঘুরে বেড়াচ্ছে। বিভিন্ন দেশের উপগ্রহ। সেগুলি তাদের নির্দিষ্ট অবস্থানে প্রতিস্থাপিত। সেভাবেই ভারতের পাঠানো অনেকগুলি কৃত্রিম উপগ্রহের মধ্যে একটি কৃত্রিম উপগ্রহ ৭০০ কেজির কার্টোগ্রাফি স্যাটেলাইট কার্টোস্যাট-২এফ পাক খাচ্ছিল নিজের কক্ষে।

সেই সময় আচমকাই তার কাছে এসে পড়ে রাশিয়ার ৪৫০ কেজির কৃত্রিম উপগ্রহ ক্যানোপাস ভি। একদম কাছে এসে পড়ায় তাদের মধ্যে একটা মুখোমুখি সংঘর্ষের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

রাশিয়ার মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র রসকসমস জানাচ্ছে ২টির মধ্যে এক সময় দূরত্ব কমে ২২৪ মিটার দাঁড়ায়। সে সময় মহাকাশে একটা ভয়ংকর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে যাচ্ছিল। কিন্তু তা ভাগ্যক্রমে এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

সংঘর্ষ না হয় এড়ানো গেছে, কিন্তু এমন ঘটনা কীভাবে ঘটল? কারণ কৃত্রিম উপগ্রহের গতিবিধির ওপর নজর রাখা হয় পৃথিবী থেকে। তা সত্ত্বেও এমনটা হল কীভাবে?

কীভাবে এমনটা হল তা রাশিয়া বা ভারত কেউই কিছু জানায়নি। রাশিয়া তো এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে তবু এনেছে। রাশিয়া ঘটনার কথা জানানোর পরও ভারতের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ইসরো মুখে কুলুপ এঁটেছে। তারা এ নিয়ে একটা শব্দও খরচ করেনি।

রাশিয়ার ৪৫০ কেজির কৃত্রিম উপগ্রহ ক্যানোপাস ভি মহাকাশে পাক খাচ্ছে পৃথিবীর উপরিভাগ, বায়ুমণ্ডল, আয়নোস্ফিয়ার, ম্যাগনেটোস্ফিয়ারের ওপর নজর রাখতে। এছাড়া এই উপগ্রহ আগে থেকে ভূমিকম্পের সম্ভাবনার বার্তা দেয়।

একইভাবে ভারতের কৃত্রিম উপগ্রহ ৭০০ কেজির কার্টোগ্রাফি স্যাটেলাইট কার্টোস্যাট-২এফ ঘুরপাক খাচ্ছে প্রায় একই কাজে। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে এই কৃত্রিম উপগ্রহটি মহাকাশে পাঠায় ভারত।

ভারতের কার্টোস্যাট-২ সিরিজের উপগ্রহগুলির মধ্যে এটি অষ্টম। এরও কাজ সেই পৃথিবীর উপরিভাগের গতিবিধির ওপর নজর রাখা। ২টি কৃত্রিম উপগ্রহরে এই মুখোমুখি হয়ে পড়া কিন্তু আগামী দিনের জন্য মহাকাশেও দুর্ঘটনার এক নতুন সম্ভাবনার ইঙ্গিত দিয়ে রাখল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button