Business

২ হাজার টাকার নোট বদলে নেওয়ার সময়সীমা বাড়াল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

দেশে ২ হাজার টাকার নোট আর ব্যবহার করা যাবেনা। এই নোট ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গ্রহণীয় বলে জানানো হয়েছিল। সেই সময়সীমা এদিন বাড়াল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

ভারতে ২০১৬ সালে নোটবন্দির পর নতুন নোট হিসাবে সামনে আসে গোলাপি রংয়ের ২ হাজার কাটার কাগজি নোট। সেই নোট দিব্যি চলছিল। কিন্তু ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক নোট মুদ্রণ প্রাইভেট লিমিটেড জানিয়েছে ভারতে ২ হাজার টাকার নোট ছাপা হয়নি বিগত ৩ অর্থ বর্ষে। ২০১৯-২০, ২০২০-২১ এবং ২০২১-২২-এ একটাও ২ হাজার টাকার নোট ছাপা হয়নি।

কিন্তু যে নোট তার আগেই বাজারে ছিল তা বিনিময় মুদ্রা হিসাবে চলছিল। চলতি বছরের ১৯ মে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানিয়ে দেয় ২ হাজার টাকার নোট ব্যবহার বন্ধ করা হচ্ছে। তবে তার জন্য সময় দেওয়া হয় সাধারণ মানুষকে।

কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২ হাজার টাকার নোট কিছু কিনতে ব্যবহার করা যাবে। কেউ চাইলে ওই নোট নিজের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমাও করতে পারেন। অথবা ২ হাজার টাকার নোট ব্যাঙ্কে নিয়ে গিয়ে সম মূল্যমানের অন্য নোট বিনিময় করে নিতে পারেন।

সেই ৩০ সেপ্টেম্বর ছিল শনিবার। এদিনই ছিল ২ হাজার টাকার নোট সঙ্গে থাকলে তা জমা করে দেওয়ার শেষ দিন। তারপরে এ নোটের আর কোনও মূল্য থাকবেনা বলেই জানা ছিল।

কিন্তু সাধারণ মানুষের কেউ যদি এখনও ২ হাজারের নোট ব্যাঙ্কে জমা না করে থাকতে পারেন, সেজন্য এই সময়সীমা শনিবার বাড়ানোর কথা জানিয়ে দিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক জানিয়ে দিয়েছে এই সময়সীমা বাড়িয়ে ৭ অক্টোবর করা হয়েছে। ৮ অক্টোবর থেকে আর এই নোট ব্যাঙ্কে জমা করা যাবেনা।

ফলে আরও ৭ দিন অতিরিক্ত সময় মানুষ পেয়ে গেলেন। যদি ভুলবশত কারও বাড়িতে ওই নোট থেকে যায় তাহলে তিনি তা চাইলে এরমধ্যে বিনিময় করে নিতে পারবেন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button