Business

সোনার গয়নাকে আরও ঝলমলে করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

সোনার গয়না কমবেশি ভারতীয়দের ঘরের অবশ্য গচ্ছিত। সেই সোনার গয়নার ঔজ্জ্বল্য আরও বাড়িয়ে দিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।

নয়াদিল্লি : ভারতীয় ঘরানায় সোনার গয়না মানেই মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের আবশ্যিক উপাদান। ভারতে বিয়ে থেকে অন্নপ্রাশন, সবেতেই সোনার একটা কুচি হলেও থাকতে হবে। এটাই পরম্পরা। এটাই রীতি। সোনা যেমন ভারতে এক মাঙ্গলিক ধাতু হিসাবে পরিগণিত হয়, তেমনই আবার বিপদের ভরসা হিসাবেও তার পরিচিতি ঘরে ঘরে। নারীর অলঙ্কার পরিবারের বিপদের দিনে প্রয়োজনে অর্থের এক বড় ভরসা হয়ে দাঁড়ায়। বিপদের দিনে সেই সোনা বিক্রি করে বা বন্ধক দিয়ে অনেকেই বিপদের হাত থেকে রেহাই পাওয়ার অর্থের সংস্থান করেন। যেমন এই করোনা আবহ। করোনা আবহে এখন বহু মানুষ কাজ হারিয়েছেন। রোজগার কমেছে। এই অবস্থায় অনেকেই চাইছেন ব্যাঙ্কে সোনা গচ্ছিত রেখে ঋণ নিতে। সে বিষয়টি মাথায় রেখেই এবার আরবিআই সোনা রেখে ঋণে সুবিধা বাড়াল।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে এবার থেকে সোনা রেখে ঋণের অঙ্ক বেশি পাবেন গ্রহীতা। এতদিন ব্যাঙ্কে সোনা রেখে ঋণ নিতে গেলে ব্যাঙ্ক গচ্ছিত রাখা সোনার মোট মূল্যের ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ঋণ দান করত। এদিন ব্যাঙ্কের সেই ঋণদানের ক্ষমতা ৯০ শতাংশ করে দিল আরবিআই। অর্থাৎ আগামী দিনে কেউ সোনা গচ্ছিত রেখে তার বিনিময়ে ঋণ নিতে চাইলে তাঁর গচ্ছিত সোনার মোট মূল্যের ৯০ শতাংশ পর্যন্ত তিনি ঋণ হিসাবে পেতে পারবেন ব্যাঙ্ক থেকে। যা অবশ্যই এই করোনা আবহে সুরাহার খবর বয়ে আনল।

সাধারণ মানুষ, ছোট ব্যবসায়ী এবং নতুন ব্যবসায়ীদের সুরাহার কথা বিবেচনা করেই এই করোনা পরিস্থিতিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ব্যাঙ্কগুলিকে জানিয়েছে আরবিআই।

আরবিআই অবশ্য এটা স্পষ্ট করে দিয়েছে যে এই সোনা রেখে ঋণের অঙ্ক গচ্ছিত সোনার মোট মূল্যের ৯০ শতাংশ পর্যন্ত বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কগুলি ঋণের অর্থ হিসাবে দিতে পারবে যদি তা কৃষি ক্ষেত্রের প্রয়োজনে না হয়। তবে এটা অনেকটা লিমিটেড পিরিয়ড অফারের মত সামনে আনল আরবিআই। আগামী ৩১ মার্চ ২০২১ সাল পর্যন্তই এই সুযোগ থাকছে। ১ এপ্রিল থেকে যেমন এখন রয়েছে তেমনই সোনার মোট মূল্যের ৭৫ শতাংশ অর্থই ঋণ হিসাবে সবোর্চ্চ মিলতে পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button