Feature

রাখিবন্ধন অশুভ উৎসব, ৮০০ বছরে কোনও বোন ভাইকে রাখি পরান না এখানে

এ অঞ্চলের প্রতিটি পরিবার বিশ্বাস করে রাখিবন্ধনের দিনটি অশুভ। তাই এখানে গত ৮০০ বছরে কেউ কখনও রাখি পালন করেননি।

সারা দেশে যখন রাখি উৎসব কবে আসবে সেই আশায় দিন গোনেন মানুষজন। ভাই বোনের এই সুন্দর উৎসবে কার্যত মেতে ওঠেন সকলে। তখন ভারতেরই একটি এলাকা অশুভ দিন হিসাবে পালন করেন এই উৎসবের দিনটা।

এই দিনে ওই এলাকা জুড়ে সব মানুষ এক বিমর্ষ দিন কাটান। এমনকি কর্মসূত্রে যাঁরা ওই গ্রামের বাইরেও থাকেন তাঁরাও রাখিবন্ধন উৎসবে শামিল হন না। কোনও সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন না। রাখি পরা তো দূরের কথা।

কিছুদিনের কথা নয়। ৮০০ বছর ধরে এই এলাকায় রাখিবন্ধন পালিত হয়না। প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে এই নিয়ম মেনেও আসছেন সকলে।

এমনকি কথিত আছে মাঝে কয়েকজন গ্রামবাসী রাখি পালন করার চেষ্টা করেন। কিন্তু যাঁরাই পরিবারে রাখি পালন করেন তাঁদের পরিবারেই তারপর কোনও না কোনও খারাপ কিছু ঘটে। তারপর থেকে কেউ কখনও রাখি পালনের কথা মাথায় আনেন না।

গাজিয়াবাদের মুরাদানগরের সুরানা গ্রাম এখনও ৮০০ বছর পুরনো স্মৃতি বয়ে বেড়ায়। কি হয়েছিল সেদিন? স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, ১২০৬ সালের কথা। এই গ্রামের নাম তখন ছিল সোহানগড়। সেখানে আক্রমণ করেন মহম্মদ ঘোরি।

গোটা গ্রামে নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ, শিশু নির্বিশেষে তিনি সকলকে হত্যা করেন। একজনও বাঁচতে পারেননি। দিনটা ছিল রাখিবন্ধনের দিন।

সেদিন মাত্র ১ জন বেঁচে যান। ওই গ্রামের এক মহিলা সন্তানসম্ভবা হওয়ায় তিনি তখন পিতৃগৃহে ছিলেন। তাই তিনি বেঁচে যান। পরে তাঁর যমজ সন্তান হয়। তাঁরা ২ জন এই জনপ্রাণিহীন গ্রামে ফিরে আসেন। এখানে থাকতে শুরু করেন।

তাঁদের সঙ্গে আসেন ছাবারিয়া গোত্রের ১০০ জন ক্ষত্রিয় আহির রাণা। এঁরা এই গ্রামে বসবাস শুরুর পর এখন এই গ্রামের জনসংখ্যা ২২ হাজার। কিন্তু তাঁরা কেউ কখনও রাখি পালন করেননি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button