Entertainment

৪৩ দিনের লড়াই থামিয়ে অন্য লোকে হাসির রাজা

তাঁর হাসিমাখা মুখটাই দেখতে অভ্যস্ত গোটা দেশ। কখনও ঠোঁটের কোণা থেকে হাসি বিদায় নেয়নি। এবার অন্য লোকে পাড়ি দিলেন সেই হাসির রাজা।

ভারতের মত দেশে স্ট্যান্ড আপ কমেডির যুগ শুরু হয়েছে অনেক পরে। এভাবেও যে মানুষকে আনন্দ দেওয়া যায় আর তা একটা পেশা হতে পারে তার শুরুর সারির প্রতিভা ছিলেন তিনি।

ভারতের প্রথম কমেডি শো-এ প্রথম স্থান না পেলেও তিনি মানুষের মন জয় করে নিয়েছিলেন। তারপর থেকে তাঁকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। তাঁর বুদ্ধিদীপ্ত হাস্যকৌতুক তো মানুষের মন জয় করতই, সেইসঙ্গে তাঁর মত করে শব্দ পরিবেশন হয়তো আর সম্ভব হবেনা।

মানুষকে হাসাতেন, সঙ্গে নিজেও হাসতেন। আর সেই হাসিমুখটা সকলের মনে গেঁথে দিয়েই তিনি বিদায় নিলেন ইহজগতের রঙ্গ জীবন থেকে।

৪৩ দিনের লড়াই থামিয়ে বুধবার চলে গেলেন রাজু শ্রীবাস্তব। ভারতের হাসির রাজা গজোধর ভাইয়া। এই গজোধর ভাইয়া নামেই সকলে তাঁকে চেনেন। আবার রাজু শ্রীবাস্তব নামেও তিনি সমান পরিচিত।

গত ৯ অগাস্ট দিল্লির একটি জিমে শরীরচর্চা করাকালীন তিনি বুকে ব্যথা অনুভব করেন। প্রায় অজ্ঞান হয়ে পড়েও যান। তাঁকে দ্রুত দিল্লি এইমস-এ নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই গত ৪৩ দিন ধরে যমে মানুষে টানাটানি চলেছে। ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন তাঁর মস্তিষ্ক কাজ করা বন্ধ করেছে। তবু প্রাণটা ছিল। ফিরিয়ে আনার লড়াই চলছিল। কিন্তু কোনও চেষ্টাই আর কাজে এল না।

উত্তরপ্রদেশের কানপুরের একটি সাধারণ পরিবারের ছেলে রাজু শ্রীবাস্তব নিজের বুদ্ধি ও হাস্যরসের সহজাত প্রতিভায় ভারতের সকলের পরিচিত হয়ে উঠেছিলেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button