National

রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড ডেরেক, দোলা সহ ৮ সাংসদ, ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী

সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড করা হল তৃণমূলের ২ সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন ও দোলা সেন সহ ৮ সাংসদকে।

নয়াদিল্লি : কৃষি বিলকে কৃষক বিরোধী বলে দাবি করে সংসদে সোচ্চার ছিলেন বিরোধী সাংসদরা। সরকারের আনা এই বিলের প্রবল সমালোচনা করছিলেন তাঁরা। সংসদের উচ্চকক্ষে রবিবার বিরোধীরা প্রবল বিরোধিতা শুরু করেন।

ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা। ছিলেন তৃণমূল, কংগ্রেস, সিপিএম, আপ সহ বিরোধী সাংসদেরা। তখন সভা পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ নারায়ণ।

ওয়েলে নেমে বিক্ষোভের পাশাপাশি হরিবংশ নারায়ণের সামনের রুলবুক ও মাইক নিয়ে টানাটানি করেন বিরোধী সাংসদেরা। যার মধ্যে ছিলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন।

বিরোধীরা যখন সোচ্চার তখন পাল্টা স্লোগান দিতে থাকেন শাসক দলের সাংসদরাও। সংসদ উত্তাল হয়ে ওঠে। ফলে তা সাময়িক মুলতুবি করে দেওয়া হয়। দুপুরে রাজ্যসভার অধিবেশন চালু হলেও বিরোধী বিক্ষোভ বজায় থাকে। তার মধ্যেই ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় কৃষি বিল।

রবিবার সংসদে করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে বিরোধীদের ওয়েলে নেমে আসা ও রুলবুক নিয়ে টানাটানি সহ নানা আচরণকে অসংসদীয় আখ্যা দিয়ে ৮ জন সাংসদকে সাসপেন্ড করেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু। যার মধ্যে তৃণমূলের ২ সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন এবং দোলা সেন রয়েছেন।

এছাড়া সাসপেন্ড হওয়া অন্য ৬ সাংসদ হলেন কংগ্রেসের রাজীব সাতাভ, রিপুন বোরা, সৈয়দ নাসির হোসেন, সিপিএম-এর কেকে রাগেশ, ই করিম এবং আম আদমি পার্টি-র সঞ্জয় সিং। এঁদের ৭ দিনের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে।

তাঁর দলের ২ জন সহ ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করার ঘটনায় প্রবল ক্ষোভ প্রকাশ করে ট্যুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কৃষক স্বার্থে লড়াই করা এই ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করার ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক বলে ব্যাখ্যা করেন তিনি। তবে তাঁরা থামবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে ৮ সাংসদকে সাসপেন্ড করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার সকাল থেকেই সংসদ তোলপাড়। দফায় দফায় মুলতুবি হয়ে যায় সংসদের অধিবেশন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.