National

পশ্চিমবঙ্গ সহ ১২টি রাজ্যে সক্রিয় সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইএস, জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের ১২টি রাজ্যে সক্রিয় রয়েছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস। জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

নয়াদিল্লি : ভারতে সক্রিয় রয়েছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস। ভারতের ১২টি রাজ্যে তা যথেষ্ট সক্রিয়। যার মধ্যে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গও। ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেটিভ এজেন্সি-র তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার রাজ্যসভায় একথা জানালেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কৃষ্ণ রেড্ডি।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান দেশের মোট ১২টি রাজ্যে সক্রিয় এই সন্ত্রাসবাদী সংগঠন। যারমধ্যে রয়েছে কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, বিহার, রাজস্থান, জম্মু-কাশ্মীর এবং পশ্চিমবঙ্গ।

২০১৪ সালে ইরাক ও সিরিয়ার অনেক জায়গায় নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইএসআইএস। পরে তারা অন্য দেশেও নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে থাকে। আল কায়দা সহ অন্য সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের সঙ্গেও তারা যোগাযোগ স্থাপন করে। ভারতে তারা সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে নিজেদের প্রচার চালাচ্ছে বলে জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী দাবি করেন কেন্দ্র ও রাজ্যের বিভিন্ন সুরক্ষা এজেন্সি-র কাছে এই তথ্যও রয়েছে যে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে থেকে তারা সদস্য পেয়েছে। আইএস-এ যোগ দিয়েছে বেশ কয়েকজন। পুরোটাই হচ্ছে ইন্টারনেটের মাধ্যমে। তাই সাইবারস্পেসে-র দিকে কড়া নজর রাখছে সরকার। আইনানুগ ভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হচ্ছে।

মন্ত্রী জানান, দক্ষিণের ৫ রাজ্য কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ ও তেলেঙ্গানা মিলিয়ে ১৭টি এই সম্বন্ধীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ১২২ জনকে বিভিন্ন সময়ে আইএস যোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি এও জানান, ভারত সরকারের সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের তালিকায় আইএস রয়েছে।

বিদেশ থেকে আইএস-কে সাহায্য করা হচ্ছে আর্থিকভাবে। একথাও মেনে নিয়েছেন মন্ত্রী। তবে আইএস সম্বন্ধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা ভঙ্গের চেষ্টা সম্বন্ধে কী খবর রয়েছে তা জানাননি জি কৃষ্ণ রেড্ডি।

বিদেশ থেকে আইএস-কে আর্থিকভাবে সাহায্য করা হচ্ছে একথা মেনে নিলেও কোন দেশ তাদের সাহায্য পাঠাচ্ছে তা তিনি জানাতে চাননি। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের আধিকারিকদের মতে, পাকিস্তান থেকে আইএস সাহায্য পাচ্ছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button