Entertainment

সমুদ্রের ধারে স্বপ্নের রাতে গাঁটছড়া বাঁধলেন নুসরত জাহান – নিখিল জৈন

বুধবার রাত। অভিনেত্রী সাংসদ নুসরত জাহানের জীবনের হয়তো সবচেয়ে আনন্দে রাত। হতেই হবে। কারণ বিয়ের দিনটা তো সব মেয়ের জীবনেই সবচেয়ে আনন্দের হয়। ২৯ বছরের নুসরতই বা ব্যতিক্রম হবেন কেন। সে আনন্দ, উচ্ছ্বাস ব্যক্তও করেছেন তিনি। ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সঙ্গে এক খুশির ভবিষ্যতের অঙ্গীকার করেছেন তিনি। নুসরত জাহানের বিয়ের আগে থেকেই অবশ্য তাঁর বিয়ে নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়েছিল। কলকাতায় হয় গায়ে হলুদ। আর বিয়ে তুরস্কে। তুরস্কের ছবির মত সুন্দর শহর বোডরাম। বোডরাম থেকে ৮৪ কিলোমিটার দূরে মিলাস। মিলাসেই রয়েছে বিলাসবহুল হোটেল সিক্স প্লেস কাপালাঙ্কিয়া। এজিয়ান সাগরের ধারে এই স্বপ্নের মত হোটেলেই বুধবার রাতে সাতপাকে বাঁধা পড়েন নুসরত ও নিখিল।

এজিয়ান সাগরকে পিছনে রেখে ডিজাইনার সব্যসাচী মুখোপাধ্যায়ের তৈরি লাল লেহেঙ্গায় যেমন সুন্দর দেখিয়েছে নুসরতকে, সব্যসাচীর আইভরি রঙের পোশাকে ততটাই সুন্দর নিখিল। সদ্য বিবাহিত স্বামী-স্ত্রীর সেই ছবি এখন সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল। বিয়ের অনুষ্ঠানে অবশ্য সাক্ষী ছিলেন ২ পরিবারের আত্মীয় বন্ধুরা। এছাড়া নুসরতের সঙ্গে ছিলেন তাঁর বহুদিনের বন্ধু তথা যাদবপুরের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। গোলাপি লেহেঙ্গায় সেজেছিলেন তিনি।

বুধবার রাতে বিয়ের আগে অবশ্য সোম ও মঙ্গলবার বিভিন্ন পার্টি চলেছে ২ পরিবারের। কখনও নৌকায় ভেসে পার্টি, কখনও সমুদ্রের ধারে পার্টি। তুরস্কে বিয়ে তো হল। এবার রিসেপশনের পালা। যা অবশ্য কলকাতাতেই হতে চলেছে। আগামী ৪ জুলাই রিসেপশন। সেখানে উপস্থিত থাকবেন চলচ্চিত্র জগতের বহু পরিচিত মুখ। উপস্থিত থাকবেন অনেক নেতা মন্ত্রীও। এদিকে বিয়ের জন্য লোকসভায় এখনও শপথ গ্রহণ করতে পারেননি বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান ও যাদবপুরের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button