Entertainment

শরীর নিয়ে কটূক্তি বন্ধ হওয়া উচিত, বললেন মিশন মঙ্গল অভিনেত্রী

কার নাক ঠিক নেই, কে মোটা, কার অন্য খুঁত রয়েছে। এসব নিয়ে বিভিন্ন সময়ে সমালোচনার শিকার হন অভিনেত্রীরা। সকলে চান অভিনেত্রীরা হবেন অস্বাভাবিক সুন্দরী।

কার নাক ঠিক নেই, কে মোটা, কার অন্য খুঁত রয়েছে। এসব নিয়ে বিভিন্ন সময়ে সমালোচনার শিকার হন অভিনেত্রীরা। সকলে চান অভিনেত্রীরা হবেন অস্বাভাবিক সুন্দরী। তাঁদের কোনও খুঁত থাকবেনা। মুখ হবে অপূর্ব। শরীর হবে নিখুঁত। বাস্তবে সম্ভব নয়, এমন সৌন্দর্য অভিনেত্রীদের থেকে আশা করেন অনেকে। এটা ঠিক নয়। সকলেই জন্মগ্রহণের পর নিজের মত দেখতে হন। সকলেই সকলের চেয়ে আলাদা। সকলেরই আলাদা আলাদা সৌন্দর্য আছে। তাকে সম্মান করা উচিত। শরীর নিয়ে কটূক্তি বন্ধ হওয়া উচিত। এই ভাষাতেই সমালোচকদের জবাব দিলেন দক্ষিণী নায়িকা নিত্যা মেনন। যিনি বলিউডে পা রাখছেন মিশন মঙ্গল দিয়ে।

দক্ষিণী সুন্দরী জানিয়েছেন, বিদ্যা বালান, ভূমি পেডনেকর, সোনাক্ষী সিনহাদের মত অনেক অভিনেত্রীকে ওজন কমাতে হয়েছে। এঁদের বিভিন্ন সময়ে মোটা হওয়া নিয়ে সমালোচনার শিকার হতে হয়েছে। অনেক নেটিজেন মনে করেন এঁরা হয় বেশি খান। অথবা পরিশ্রমী নন। তা কিন্তু নয়। মনে রাখা উচিত, মোটা হওয়া একটা শারীরিক বিষয়। এটা মানুষ অনেক সময় নিয়ে জন্মান।

দক্ষিণ ভারতে সুন্দরী নিত্যার অনেক ফ্যান। তাঁর বেশ কয়েকটি সিনেমা হিট। দক্ষিণের যথেষ্ট জনপ্রিয় নায়িকা তিনি। নিত্যার মতে, ফিগার ঠিক হতে হবে এই নিয়ে বলিউডে অভিনেত্রীদের ওপর যতটা চাপ থাকে ততটা দক্ষিণ ভারতীয় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে নেই। আবার অন্যদিকে নিত্যার মতে, দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমায় পেশাদার মানসিকতার চেয়ে, বলিউডের পেশাদার মানসিকতা অনেক বেশি। এখানে কাজের পরিবেশও দারুণ। এখানে সহকর্মীরা খুব ভাল মিশে যান।

আগামী ১৫ অগাস্ট মুক্তি পাচ্ছে নিত্যার বলিউডে ডেবিউ সিনেমা ‘মিশন মঙ্গল’। এই সিনেমায় অক্ষয় কুমার একমাত্র পুরুষদের মধ্যে বড় নাম। এছাড়া সিনেমাটিতে একগুচ্ছ নায়িকা রয়েছেন। রয়েছেন বিদ্যা বালান, সোনাক্ষী সিনহা, তাপসী পান্নু, কীর্তি কুলারির মত অভিনেত্রীরা। সিনেমায় নিত্যা মেননকে দেখা যাবে এক বিজ্ঞানীর ভূমিকায়। বলিউডে আত্মপ্রকাশ করে সুন্দরী নিত্যা নিজেকে টিনসেল টাউনে কতটা প্রতিষ্ঠা দিতে পারেন, কতটা চোখে পড়েন তিনি, তা সময় বলে দেবে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button