World

হাজার হাজার বছর ধরে জ্বলছে এই ঝর্নার আগুন, কীভাবে তা আজও রহস্য

ঝর্নার জল ঝরে চলেছে তার আপন খেয়ালে। অপরূপ প্রকৃতি চারধারকে স্বর্গীয় করে রেখেছে। তবে নজর কাড়ে ঝর্নার সেই আগুন। যা জ্বলে চলেছে সহস্র বছর ধরে।

জলে আগুন বলে মনে হতেই পারে। একেবারে জলে না হলেও জলের সঙ্গে আগুন লেপ্টে আছে। তাই এ আগুন ঝর্নার আগুন বলেই পরিচিত। একটু অবাক লাগতে পারে। জল আর আগুনের সম্পর্ক তো জড়িয়ে থাকার নয়। কিন্তু এ ঝর্না মানুষ দেখতেই যান তার আগুন দেখার জন্য।

ঝর্না যেমন উপর থেকে পাহাড়ের পাথুরে গা বেয়ে গতিতে নেমে আসে নিচের দিকে, এ ঝর্না তার ব্যতিক্রম নয়। আর পাঁচটা ঝর্নার সঙ্গে তার কোনও ফারাক নেই। কিন্তু এ ঝর্নার সামনে গিয়ে দাঁড়ালে এক আগুনের শিখা নজর কাড়ে।

যে পাহাড়ের গা বেয়ে ঝর্নার জল নেমে আসছে সেই ঝর্নার জলের পিছনেই একটি পাথরের খাঁজে আগুনের শিখা স্পষ্ট নজর কাড়ে। এ আগুন নেভে না। জলের ছিটেও একে এতদিনে নেভাতে পারেনি। মনে করা হয় হাজার হাজার বছর ধরে এ আগুন জ্বলেই চলেছে।

এই ঝর্নাকে তাই বলা হয় ইটারনাল ফ্লেম ফলস বা চিরন্তন অগ্নিশিখার ঝর্না। বিশার আগুন নয়, ৮ ইঞ্চির মত একটি শিখা জ্বলে চলে এখানে।


বিজ্ঞানীরা মনে করেন এখানে মাটির তলায় কোনও গ্যাসের ভাণ্ডার রয়েছে। যা থেকে সর্বক্ষণ জ্বালানি পেয়ে চলেছে এই অগ্নিশিখা। সেই মাটির তলার গ্যাসেই সহস্র বছর ধরে নিরন্তর জ্বলছে এ আগুন।

তবে এটা ধারনা মাত্র। বিজ্ঞানীরা এখনও নিশ্চিত করে এই আগুনের এভাবে জ্বলে চলার কারণ বুঝতে পারেননি। সামনে ঝর্নার জল আর তার ঠিক পিছনেই আগুনের শিখা।

এমন এক দৃশ্য চর্মচক্ষে দেখতে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ হাজির হন পশ্চিম নিউ ইয়র্কের চেস্টনাট রিজ পার্কে। যেখানে আজও ঝর্নায় লেপ্টে জ্বলে চলেছে চিরন্তন এক অগ্নিশিখা।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button