World

বাগানে জন্মানো কুমড়োয় চেপে জন্মদিনে নদীতে ভেসে বেড়ালেন প্রৌঢ়

তাঁর বাগানেই জন্মেছিল কুমড়োটা। তাঁর বাগানে বড় বড় কুমড়ো বানানো একটা শখের মধ্যে পড়ে। তিনি এবার জন্মদিন পালনে বেছে নিলেন সেই কুমড়োকেই।

জন্মদিন মানেই তো একটা বিশেষ দিন। কেক কাটা হবে, ভালমন্দ খাওয়া দাওয়া হবে, পরিবারের লোকজন একসঙ্গে হয়ে হ্যাপি বার্থ ডে গান গাইবেন, এমনকি অনেকে নিমন্ত্রিতও হতে পারেন। বাড়ি সেজে উঠবে সুন্দর সাজে। এভাবেই একটা দিন কেটে যাবে স্বপ্নের মত।

কিন্তু ৬০ বছরে পা দিয়ে এক প্রৌঢ় একটু অন্যভাবে নিজের জন্মদিনটা পালন করলেন। আর তাঁর সেই জন্মদিন পালন কার্যত গোটা বিশ্বের সংবাদমাধ্যমে জায়গা করে নিল।

ওই প্রৌঢ় নিজের বাগানে কুমড়ো ফলান। এটা তাঁর পুরনো শখ। কুমড়ো মানে কিন্তু ছোট ছোট কুমড়ো নয়! অতিকায় সব কুমড়ো বানানোই তাঁর লক্ষ্য থাকে। প্রায় ৪০০ কেজি ওজনের এমনই একটি কুমড়ো তিনি ফলিয়ে ফেলেন বাগানে। তারপর আসে তাঁর জন্মদিন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেলভিউ শহরের বাসিন্দা ডুয়ানে হ্যানসেন তাঁর সেই কুমড়োর পেটটা কেটে বার করে নেন। তাতে কুমড়োর মোটা খোলটা থাকে। ভিতরের শাঁস বার করার ফলে একটি বড় গর্ত তৈরি হয় ওই দানব কুমড়োয়।


এবার ডুয়ানে হ্যানসেন সেটার ফাঁকা পেটে বসে ভেসে পড়েন মিসৌরি নদীর বুকে। নদীর জলে এগিয়ে যাওয়ার জন্য হাতে নেন একটি দাঁড়। তারপর নদী বেয়ে এগোতে থাকেন।

এমন কুমড়োয় চড়ে ভাসতে ভাসতে জন্মদিনটা নদীর বুকে কাটান হ্যানসেন। সেইসঙ্গে ৬০ কিলোমিটার জলপথে পাড়িও দিয়ে ফেলেন। পৌঁছে যান নেব্রাস্কা শহরে। সকালে বেরিয়ে বিকেলে সেখানে পৌঁছন তিনি।

আর এভাবেই এক অন্য জন্মদিন পালনের আনন্দ উপভোগ করেন ডুয়ানে হ্যানসেন। কুমড়োয় চেপে নদীর বুকে দিন কাটানোই হল তাঁর জন্মদিনের সবচেয়ে বড় উপহার।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button