National

লকার খুলতেই মাথায় হাত, পড়ে আছে শুধুই ধুলোর ঢিবি

লকারে মানুষ তাঁর মূল্যবান সামগ্রি বিশেষত গয়না রেখে দেন। এক মহিলা ১ বছর পর লকার খুলে পেলেন একরাশ ধুলো। ব্যাঙ্ক কর্মীরাও বিষয়টি দেখে হতবাক।

এক মহিলা তাঁর মেয়ের বিয়ের জন্য অনেক লড়াই করে ১৮ লক্ষ টাকা জমিয়েছিলেন। সেই টাকা তিনি সযত্নে গত বছর অগাস্ট মাসে তাঁর লকারে রেখে আসেন। টাকাটা সুরক্ষিত থাকবে বলেই তিনি নগদ ১৮ লক্ষ টাকা লকারে রাখেন। তারপর আর লকারও খোলেননি।

এদিকে চলতি বছরে ব্যাঙ্কে যাঁদের লকার রয়েছে তাঁদের লকারের নতুন করে এগ্রিমেন্ট হয়। এজন্য ওই মহিলাকে ডেকে পাঠায় ব্যাঙ্ক। তাঁকে লকার চুক্তি নবীকরণ ও কেওয়াইসি জমা করতে বলা হয়।

সেসব কাজ করে ওই মহিলা যেহেতু ব্যাঙ্কে এসেছিলেন তাই ভাবেন একবার লকারটা খুলে দেখে যাবেন সব ঠিকঠাক আছে কিনা। সেইমত তিনি লকার খোলেন।

লকার খোলার পর মহিলার মাথায় কার্যত আকাশ ভেঙে পড়ে। ১ বছর আগে যে নগদ ১৮ লক্ষ টাকা রেখে গিয়েছিলেন তার একটা টাকাও নেই। পড়ে আছে শুধুই ধুলো।


লকার খুলতে সেই ধুলোর ঢিবি বেরিয়ে আসে বাইরেও। ওই লকার যে কেউ খুলেছিলেন তা নয়। লকারে রাখা ওই নগদ আদপে কেটে ধুলো করে দিয়েছে উইপোকা। ব্যাঙ্ক কর্মীরাও এই কাণ্ড দেখে হতবাক।

মেয়ের বিয়ের জন্য জমানো ১৮ লক্ষ টাকা এভাবে শেষ হয়ে যাওয়ায় ভেঙে পড়েছেন উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদের বাসিন্দা অলকা পাঠক। তিনি ওই টাকা ফেরত পেতেও মরিয়া। ব্যাঙ্ককেই এই টাকা ফেরত দিতে হবে বলে দাবি করছেন অলকা।

যদিও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের লকার আইন বলছে, ব্যাঙ্কের লকারে নগদ টাকা রাখা যায়না। লকারে মূল্যবান অলঙ্কার বা গুরুত্বপূর্ণ কাগজ রাখা যায়। ব্যাঙ্ক অফ বরোদার আশিয়ানা শাখায় এই ঘটনা ঘটেছে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button