National

পালানোর পথ পেল না, পুলিশের জালে ভিনদেশি তান্ত্রিক

পুলিশের জালে ধরা পড়ে গেল এক তান্ত্রিক। পড়শি দেশ থেকে এসে গুছিয়ে লোক ঠকানোর ব্যবসা ফেঁদেছিল সে। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। ধরা পড়ে গেল সে।

অনেক মানুষই অভিযোগ করেছিলেন যে তাঁদের কালো যাদুর মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আদপে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এক তান্ত্রিক। একের পর এক অভিযোগে পুলিশও জেরবার হয়ে যাচ্ছিল। খোঁজ শুরু হয়েছিল ওই তান্ত্রিকের।

কিন্তু সে জায়গা বদল করছিল। ফলে পুলিশ সহজে তার নাগাল পাচ্ছিল না। এদিকে বিভিন্ন জায়গা থেকে পুলিশে অভিযোগ জমা পড়ছিল। অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল ওই ভিনদেশি তান্ত্রিক।

নেপালের বাসিন্দা মহম্মদ ইসলামুদ্দিন সীমানা পার করে ভারতে আসে কয়েক বছর আগে। তারপর বিহারের চম্পারণে থাকতে শুরু করে। সেখানে সে নিজের নামে একটি আধার কার্ডও জোগাড় করে। কিন্তু বিহারের মধ্যেই তার কাণ্ডকারখানা সীমাবদ্ধ ছিলনা।

উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন জায়গাতেও যাতায়াত চালাচ্ছিল সে। ৫১ বছরের ওই তান্ত্রিক মানুষকে আশ্বাস দিত যে সে তাঁদের সমস্যা কালো যাদু দিয়ে সমাধান করে দেবে। বিনিময়ে সে টাকা থেকে সোনা, রূপো যে যা পারতেন, তাই নিত।

পুলিশ তাকে অবশেষে উত্তরপ্রদেশের বিজনৌর থেকে গ্রেফতার করল। তার কাছ থেকে প্রায় সাড়ে ৫ লক্ষ টাকা নগদ এবং অনেক সোনা ও রূপোর গয়না উদ্ধার হয়েছে।

লোক ঠকানো সহ ৪টি ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। ওই তান্ত্রিককে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তার এই কাজের সঙ্গে আরও কারা কারা যুক্ত তাদেরও খোঁজ শুরু করেছেন তদন্তকারীরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.