National

নির্বাচনে টিকিট না পেয়ে কেঁদে ভাসালেন এক নেতা

ভারতীয় রাজনীতিতে নেতাদের অত্যন্ত সুচতুর মানুষ হিসাবেই ধরে নেওয়া হয়। নরম মনের মানুষের এখানে জায়গা নেই। কিন্তু এক নেতা তো টিকিট না পেয়ে কেঁদে ভাসালেন।

নেতাদের সমস্যায় ফেললে তাঁরা কড়া মানসিকতা দিয়েই তা প্রতিরোধ করেন। এমনটাই সাধারণ মানুষের ধারনা। সেই ধারনা একেবারে ধূলিসাৎ করে দিলেন এক নেতা।

নির্বাচনে দাঁড়ানোর জন্য দল টিকিট দেবে বলেও দেয়নি। সেই দুঃখে কেঁদে ভাসালেন এক বহুজন সমাজ পার্টির নেতা। তাঁর দাবি, তাঁকে হাসির খোরাক বানিয়ে ছেড়েছে দল।

ওই নেতার আরও দাবি, তাঁকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল টিকিট দেওয়ার। এজন্য তাঁর কাছে দলের পক্ষ থেকে টাকাও চাওয়া হয় বলে দাবি বিএসপি নেতা আরশাদ রাণার।

আরশাদের দাবি, তিনি বিএসপির সৈনিকের মত পরিশ্রম করেছেন। দলে অনেকগুলি পদেও ছিলেন। তিনি এবার ভোটে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন। সেই ইচ্ছা প্রকাশ করার পর দলের এক নেতা তাঁর কাছে টাকা চান। প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা চাওয়া হয় বলে দাবি করেছেন আরশাদ।

তিনি বাড়ি ফিরে মায়ের সঙ্গে কথা বলেন। পরিবারে স্থির হয় একটি সম্পত্তি বেচে ওই টাকা দেবেন আরশাদ। তার বিনিময়ে দল তাঁকে ভোটে দাঁড়ানোর টিকিট দেবে। চারথাওয়াল কেন্দ্র থেকে তাঁকে টিকিট দেওয়ার কথা ছিল।

আরশাদ দলের চাহিদামত টাকাও খেপে খেপে তুলে দেন বলে দাবি করেছেন। কিন্তু শেষ মুহুর্তে তাঁকে জানানো হয় তাঁকে নয়, দল অন্য একজনকে সেখান থেকে প্রার্থী করছে। টাকাও গেল, টিকিটও গেল, এটা জানার পর কার্যত সাংবাদিকদের সামনে কেঁদে ভাসিয়ে দেন আরশাদ রাণা।

প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে সব কেন্দ্রে প্রার্থী দেওয়ার মত উপযুক্ত প্রার্থীই বিএসপি-র নেই বলে জানা যাচ্ছিল। দলের নেত্রী মায়াবতী নিজেও এবার ভোটে প্রার্থী হচ্ছেন না। সেখানে টিকিট নিয়ে আরশাদের দাবি যদি সত্যি হয় তাহলে তা দলের জীর্ণদশাই সামনে এনে দিল।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.