National

সোনা মোড়া ব্যান্ডেজ, পাচারের অভিনব কায়দাতেও শেষরক্ষা হল না

পাচারের জন্য এমন এমন সব উদ্ভাবনী ভাবনা পাচারকারীরা বার করে যা অনেককে চমকে দেয়। তেমনই এক পাচার কৌশল ধরা পড়ে দেল বিমানবন্দরে।

সোনা থেকে হিরে, এমন বহুমূল্য জিনিস পাচারের চেষ্টা কম হয়না। বেআইনিভাবে তা পাচার করতে গিয়ে অনেক সময় নিরাপত্তারক্ষীদের নজর এড়াতে নানা পন্থা বার করে পাচারকারীরা। এমনই এক নতুন ভাবনা কাজে লাগিয়ে সোনা পাচারের চেষ্টা রুখে দিলেন কাস্টমস আধিকারিকরা।

এক ব্যক্তি পায়ে চোট লাগা অবস্থায় হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হাজির হয়। তার ২ পায়েই ব্যান্ডেজ বাঁধা ছিল।

আপাত দৃষ্টিতে ওই ব্যক্তির প্রতি মানবিক আচরণই ছিল স্বাভাবিক। সাধারণ মানুষ তাই করেন। কিন্তু কাস্টমস আধিকারিকদের বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হয়। তাঁরা ওই ব্যক্তির ব্যান্ডেজেই সবচেয়ে বেশি নজর দেন।

গত রবিবার ওই ব্যক্তি শারজা থেকে বিমানবন্দরে নামে। তার পায়ের ব্যান্ডেজ দেখে সন্দেহ হওয়ার তা পরীক্ষা করেন আধিকারিকরা।

দেখা যায় ওই ব্যান্ডেজের মধ্যে সোনার পেস্ট তৈরি করে তা ঢোকানো রয়েছে। যা বাইরে থেকে দেখা বোঝার উপায় নেই। ৯৭০ গ্রাম সোনার পেস্ট উদ্ধার হয়। যার দাম প্রায় ৪৫ লক্ষ টাকা। ওই ব্যক্তিকে তারপরই সোনা পাচারের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়।

প্রসঙ্গত রবিবার এমন ঘটনা ঘটার পর সোমবারও এক ব্যক্তি দুবাই থেকে আসার পর তাকে পরীক্ষা করেন কাস্টমস আধিকারিকরা।

ওই ব্যক্তি আবার তার জাঙ্গিয়ার মধ্যে বিশেষ পকেট বানিয়ে তার মধ্যে করে সোনা আনে। তবে শেষরক্ষা হয়নি। তার কারসাজি ধরা পড়ে যায়। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.