National

তৃণমূল যুব নেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেফতার করল পুলিশ

তৃণমূল যুব নেত্রী সায়নী ঘোষকে দিনভর জেরার পর গ্রেফতার করল পুলিশ। যা নিয়ে ফের ট্যুইটারে তোপ দেগেছেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ।

ত্রিপুরায় গ্রেফতার হলেন তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষ। তাঁকে সকাল থেকেই থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করছিল পুলিশ। অবশেষে রবিবার বিকেলে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

সায়নীর বিরুদ্ধে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর সভার কাছে জোরে গাড়ি চালানো ও ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সম্বন্ধে কুরুচিকর বক্তব্যে পেশের অভিযোগ রয়েছে।

এদিন সায়নী ঘোষ যখন থানায় রয়েছেন তখন থানার বাইরে বিজেপি কর্মীরা একত্র হয়ে তাণ্ডব চালায় বলে অভিযোগ করেছে তৃণমূল। সেখানে উপস্থিত তৃণমূল কর্মীদের ওপর তারা চড়াও হয় বলেও অভিযোগ সামনে এসেছে।

সোমবার ত্রিপুরায় তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা রয়েছে। তা বানচাল করতেই বিজেপি এসব করছে বলে অভিযোগ করেছে তৃণমূল। এদিন সকালে সায়নী ঘোষকে আগরতলা পূর্ব থানায় জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। সেই জিজ্ঞাসাবাদ চলতে থাকে।


এদিকে সায়নী ঘোষকে গ্রেফতারের পর কুণাল ঘোষ ট্যুইট করে জানান, সায়নীকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর পাল্টা দাবি, হামলাকারীরা গ্রেফতার হল না, গ্রেফতার হলেন সায়নী ঘোষ।

তৃণমূল নেত্রী সুস্মিতা দেব সাফ জানিয়ে দিয়েছেন সায়নীকে পুলিশ যতক্ষণ গ্রেফতার করে রাখবে ততক্ষণ তিনি থানাতেই থাকবেন। সুস্মিতা দেব দাবি করেন সায়নীকে একা ছাড়লে তাঁর সুরক্ষার সমস্যা হতে পারে।

ত্রিপুরায় বিজেপি তাদের ওপর তাণ্ডব চালাচ্ছে বলে বারবার দাবি করে এসেছে তৃণমূল। এদিন সায়নী যখন থানায় ঢোকেন তখন বাইরে তৃণমূল নেতা সুবল ভৌমিকের গাড়িতেও ভাঙচুর চালানো হয় বলে দাবি করা হয়েছে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button