National

কেবল ধনী পর্যটকদেরই চান তাঁরা, সাফ জানালেন মন্ত্রী

ধনী পর্যটকই চাইছেন তাঁরা। তাঁরা চান না তাঁদের রাজ্যে কোনও বাজেট মাপা পর্যটক হাজির হোন। একথা স্পষ্ট করে জানিয়ে দিলেন গোয়ার পর্যটনমন্ত্রী।

গোয়া মানেই সোনালি সমুদ্রতট। গোয়া মানেই দারুণ খাওয়াদাওয়া। গোয়া মানেই এক মনে রাখার মত বেড়ানো। গোয়া মানে রাতের পর্যটন।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

পর্যটকদের মন ভাল করতে যাবতীয় উপকরণ নিয়ে তৈরি থাকে গোয়া। গোয়ার অর্থনীতির এক অন্যতম ভরসার নাম সেখানকার পর্যটন। যেখানে কেবল দেশিয় পর্যটক নন, আসেন বিদেশি পর্যটকেরাও।

করোনার ধাক্কা কাটিয়ে ফের গোয়া ঘুরে দাঁড়াতে চাইছে। ফের পর্যটক ফিরছে দেশের অন্যতম সমুদ্র শহরে। আর ঠিক সেই পরিস্থিতিতে গোয়ার পর্যটনমন্ত্রী মনোহর অজগাঁওকর যা বললেন তাতে দেশের সব পর্যটক হয়তো খুশি হবেন না।

অজগাঁওকর বলেন, তিনি চান না, তাঁর মুখ্যমন্ত্রী চান না, যে গোয়ায় কোনও বাজেট মাপা বাসে করে এসে রাস্তার ধারে রান্না করে খাওয়া পর্যটকরা আসুন। তাঁরা চান গোয়ায় কেবল ধনী পর্যটকেরাই আসুন।

তাঁরা মনে করছেন ধনী পর্যটকেরা এলে গোয়ার সংস্কৃতি ও পরম্পরা বজায় থাকবে। তাই গোয়ায় কেবল ধনী পর্যটক চাইছেন তাঁরা। তাঁরা গোয়াকে নষ্ট করেন এমন পর্যটক চান না।

প্রসঙ্গত করোনার পর আর্থিক কারণে গোয়ায় ঘুরতে আসা কিছু পর্যটক বাসে করে এসেছিলেন। তাঁরা গোয়া ঘুরতে এসে কোনও রেস্তোরাঁয় নয়, রাস্তার ধারে রান্না করে খাওয়াদাওয়া করেন। আর ঘুরে দেখেন গোয়া।

এই ঘটনার পর গোয়া সরকার এভাবে রাস্তায় ধারে রান্না করায় নিষেধাজ্ঞাও জারি করেছে। নিষিদ্ধ দ্রব্য সেবন করেন এমন পর্যটকও তাঁরা চান না বলে জানিয়েছেন পর্যটনমন্ত্রী। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button