National

নর্দমার জলে ভরা খানাখন্দের ওপর দিয়ে মন্ত্রীকে হাঁটতে বাধ্য করলেন স্থানীয়রা

ক্ষুব্ধ মানুষজন বর্ষার জল আর নর্দমার জলে ভরা খানাখন্দে ভরা রাস্তা দিয়ে মন্ত্রীমশাইকে হাঁটতে বাধ্য করলেন। গণ জাগরণের এ এক জলজ্যান্ত প্রতিচ্ছবি।

ভাষণ যেখানে দেওয়ার কথা ছিল সেখানে পৌঁছতে তখনও অনেকটা পথ যাওয়া বাকি। স্থানীয় বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী গাড়িতে এগোচ্ছিলেন। সেই সময় তাঁর পথ আটকান স্থানীয় মানুষজন।

গাড়ি ঘিরে তাঁকে বাধ্য করেন রাস্তায় নামতে। তারপর সকলে সাফ জানিয়ে দেন ভাষণ মঞ্চ পর্যন্ত এবার হেঁটেই যেতে হবে মন্ত্রীকে।

হেঁটে যাওয়াটা হয়তো বড় কথা নয়, কিন্তু যে পথ ধরে তাঁকে হাঁটতে হল তা এক কথায় দুর্বিষহ। রাস্তা বলে প্রায় আর কিছু নেই।

রাস্তা কম গর্ত বেশি। তাও আবার বর্ষার জল আর নর্দমার জলে একাকার। বর্ষার জলে নর্দমা বলে আলাদা আর কিছু নেই। নোংরা জল উপচে সব গর্ত ভরে ফেলেছে। তার ওপর দিয়েই হাঁটতে হল মন্ত্রীকে।


স্থানীয়রা জানাচ্ছেন কয়েক মাস ধরে লাগাতার তাঁরা রাস্তা সারাই করার জন্য বলে আসছেন মন্ত্রী তথা স্থানীয় বিধায়ক বলদেব সিং অওলাখকে। কিন্তু এত তদ্বিরেও কাজ হয়নি। বরং প্রতিদিন এই দুর্বিষহ রাস্তা ধরে তাঁদের যাতায়াত করতে হয়।

রাস্তা জুড়ে শুধু খানাখন্দ আর নোংরা জল ছাড়া কিছু নেই। তাই তাঁদের কি পরিস্থিতিতে প্রতিদিন কাটাতে হচ্ছে তা বোঝাতেই মন্ত্রীকে এই রাস্তা ধরে হাঁটতে বাধ্য করেন স্থানীয়রা।

ভোট বড় বালাই। উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন এগিয়ে আসছে। তাই পুরো ঘটনায় হাত ঝেড়ে ফেলতে স্থানীয় প্রশাসনের ওপর সব দোষ চাপিয়ে দিয়েছেন বলদেব সিং।

তিনিও এও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এই রাস্তা যাতে দ্রুত সারানো হয় তার বন্দোবস্ত তিনি করবেন। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের রামপুরের বিলাসপুর বিধানসভা কেন্দ্রে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button