National

৩৮ স্ত্রী, ৮৯ সন্তানকে রেখে প্রয়াত বৃদ্ধ

তাঁর স্ত্রীর সংখ্যা ৩৮, সন্তান ৮৯, ১০০-র থেকে ১১ জন কম। তাঁর একটি বিশ্ব রেকর্ডও রয়েছে। ৭৬ বছর বয়সে চলে গেলেন সেই ব্যক্তি।

তিনিই ছিলেন পরিবারের মাথা। পরিবার নেহাত ছোট নয়। তাঁর পরিবারে রয়েছেন তাঁর ৩৮ জন স্ত্রী। রয়েছেন ৮৯ জন সন্তান। সন্তানদেরও অনেকের বিয়ে হয়ে গেছে। ফলে নাতিপুতি মিলিয়ে সংখ্যা ৩৩।

এই নিয়েই ছিল জিয়োনা চানার সংসার। যা বিশ্বের সবচেয়ে বড় সংসার হিসাবে বিশ্বরেকর্ডও গড়েছে। মিজোরামের রাজধানী আইজলে বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবারের কর্তা চানা ৭৬ বছর বয়সে চলে গেলেন। তাঁর হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস সহ বেশ কিছু বার্ধক্যজনিত সমস্যা ছিল। রবিবার বিকেলে তাঁর মৃত্যু হয়।

আইজলের এক প্রশাসনিক আধিকারিক জানাচ্ছেন চানা শারীরিক সমস্যা নিয়ে স্থানীয় একটি হাসপাতালে গত ৭ জুন থেকে ভর্তি ছিলেন। চানার মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রীও।

চানা তাঁর এই পরিবারের জন্য বিখ্যাত ছিলেন মিজোরামে। এমনকি মিজোরামে যাঁরা বেড়াতে যেতেন তাঁদের জন্যও একটা বড় আকর্ষণ ছিল তাঁর পরিবার।

রীতিমত পর্যটনের অঙ্গ হয়ে গিয়েছিল চানার এই বিশ্বের সর্ববৃহৎ পরিবার। তাঁর গ্রামও এজন্য বিখ্যাত হয়ে পড়েছিল। বাকতাং লাঙ্গনুয়াম গ্রামে পর্যটকরা ভিড় করতেন চানার বাড়ি দেখতে।

চানার পাহাড়ি গ্রামে তাঁর ৪ তলা একটি বাড়ি রয়েছে। সেই বাড়িতে তাঁর পরিবারের সকলে একসঙ্গে থাকেন। বাড়িটিতে ১০০-র ওপর ঘর রয়েছে। যাতে সকলের একসঙ্গে থাকতে সমস্যা না হয়।

সকলের রান্নাও প্রতিদিন একসঙ্গে হয়। এমনকি চানার বাড়িতে অতিথি এলে তাঁদের জন্যও আলাদা ঘরের বন্দোবস্ত করা আছে। এমন এক বৃহৎ সংসারের কর্তা চলে গেলেন ৭৬ বছর বয়সে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button