National

আসতে পারল না পরিবার, বৃদ্ধের সৎকার করল পুলিশই

মৃত্যুর পর মানুষের দেহ সৎকারের অধিকার তাঁর পরিবারের। কিন্তু পরিবার যদি সেই দায়িত্ব পালনে অসমর্থ হয় তাহলে? সেক্ষেত্রে মানবিক মুখের পরিচয় দিল পুলিশ।

এক বৃদ্ধের ঘর থেকে সাড়া পাওয়া যাচ্ছেনা। এমন একটা খবর পুলিশের কাছে আসতেই পুলিশ সেখানে হাজির হয়। অনেক ডেকেও পুলিশ সাড়া পায়নি বৃদ্ধের।

দরজা ঘরের ভিতর থেকে বন্ধ। তাই উপায় না দেখে দরজা ভেঙেই ভিতরে ঢোকে পুলিশ। দেখে একাকী বৃদ্ধের নিথর দেহ পড়ে আছে ঘরে।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

খুব দ্রুত দেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে বৃদ্ধের করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে। চিকিৎসকেরা জানান বৃদ্ধের মৃত্যুর কারণ বার্ধক্যজনিত শারীরিক সমস্যা।

বিয়ে করেননি। জীবনটা একাই কাটিয়েছেন মহেন্দ্র সিং নামে ওই বৃদ্ধ। পরিবার বলতে এক ভাইপো। ভাইপোর পরিবারই তাঁর একমাত্র শিকড়।

সেই ভাইপোই তাঁর খবর রাখতেন। ফলে পুলিশ মহেন্দ্র সিংয়ের ভাইপোর সঙ্গে যোগাযোগ করে। কিন্তু সেই ভাইপো জানিয়ে দেন তিনি আমেরিকায় রয়েছেন। আর এই করোনা পরিস্থিতিতে আমেরিকা থেকে ভারতে পৌঁছনোই তাঁর পক্ষে প্রায় অসম্ভব।

তাহলে উপায়? দিল্লি জঙ্গপুরা এলাকার বাসিন্দা মহেন্দ্র সিংয়ের সঠিক সৎকারে এগিয়ে আসে দিল্লি পুলিশই। পুলিশই দেহ নিয়ে শ্মশানে রীতি মেনে সৎকার করে।

এক মানবিক মুখের পরিচয় দেন পুলিশ কর্মীরা। পুলিশের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button