National

বাড়িতে থেকে করোনা সারালেন ১০৫ বছরের বৃদ্ধা

করোনা নিয়ে গোটা দেশ চিন্তায়। হলে কী হবে তা এক বড় চিন্তার কারণ হয়েছে মানুষের কাছে। সেখানে ১০৫ বছরের এক বৃদ্ধা বাড়িতে থেকেই করোনা সারিয়ে সুস্থ হলেন।

বেঙ্গালুরু : করোনা নিয়ে অযথা চিন্তা করবেননা। করোনাকে ভয় পাবেন না। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। এ কথা বিভিন্ন মহল থেকে বারবার বলা হলেও অনেকেই করোনা নিয়ে ভীত। এমনকি করোনা হলে মৃত্যু ভয়ও তাড়া করে বেড়াচ্ছে অনেককে। ১০৫ বছরের এক মহিলার করোনা সারিয়ে সেরে ওঠা কিন্তু মানুষকে ভরসা যোগাচ্ছে।

যদি ১০৫ বছরের এক বৃদ্ধা করোনাকে হারাতে পারেন, তাহলে করোনাকে পরাজিত করা যায়। এই বিশ্বাসকে অনেকের মনে জায়গা করে দিয়েছেন কর্ণাটকের পিছিয়ে পড়া জেলা কোপ্পালের বাসিন্দা কমলাম্মা। ১০৫ বছরের ওই বৃদ্ধা সেরে উঠেছেন করোনাকে হারিয়ে।

বৃদ্ধার জ্বর ছিল। ফলে বাড়ির সকলে ঝুঁকি না নিয়ে তাঁর করোনা পরীক্ষা করান। তাতে দেখা যায় ওই বৃদ্ধা করোনা আক্রান্ত। তবে জ্বর ছাড়া তাঁর বিশেষ কোনও উপসর্গ ছিলনা।

এদিকে বাড়ির সকলে চান এত যখন বয়স তখন বাড়িতে না রেখে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে। কিন্তু বৃদ্ধা সাফ জানিয়ে দেন তাঁর করোনা নিয়ে কোনও ভয় নেই। তিনি বাড়িতেই থাকবেন। মৃত্যু হলে বাড়িতেই হবে।

ওই বৃদ্ধার নাতি আবার পেশায় আয়ুর্বেদ চিকিৎসক। তিনি তখন স্থির করেন তাঁর নিজের মত করে ঠাকুমাকে সুস্থ করে তোলার চেষ্টা করবেন। তিনি বিশেষ পাঁচন তৈরি করে খাওয়াতে থাকেন বৃদ্ধাকে।

পরিবারের দাবি, নাতির পাঁচন আর বাড়িতে নিয়ম মেনে থাকার পর বৃদ্ধা সুস্থ হয়ে ওঠেন। তাঁর করোনা পরীক্ষা ফের করানো হয়। তখন সেই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এখন বৃদ্ধা সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

বৃদ্ধার নাতি ঠাকুমাকে খাওয়ানো তাঁর বিশেষ পাঁচন নিয়ে গর্বিত। তবে তা পরীক্ষিত নয়। তাই সেই পাঁচনেই বৃদ্ধা সুস্থ হয়ে উঠেছেন এমন কিছু কখনওই প্রমাণিত নয়। তবে বৃদ্ধা সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

১০৫ বছর বয়সে যে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন করোনা সারিয়ে এটাই পরিবারের কাছে আশ্চর্যের লাগছে। বৃদ্ধা সুস্থ হওয়ায় বেজায় খুশি গোটা পরিবার। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button