National

পড়ুয়াদের অভব্যতা, অনলাইন ক্লাসে লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন শিক্ষক শিক্ষিকারা

করোনা পরিস্থিতিতে এখন ক্লাস হচ্ছে অনলাইনে। সেখানে অনেক জায়গায় পড়ুয়াদের থেকে চরম লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন শিক্ষক শিক্ষিকারা।

লখনউ : করোনা পরিস্থিতিতে বন্ধ স্কুল, কলেজ। কিন্তু পড়া তো বন্ধ থাকতে পারেনা। তাই স্কুলগুলির এখন একমাত্র ভরসা অনলাইন ক্লাস। ৬ মাস আগেও যে অনলাইন ক্লাস সম্বন্ধে কারও ধারণাও ছিলনা, সেই অনলাইন ক্লাস এখন স্কুলের তরফে ছাত্রদের পড়ানোর একমাত্র মাধ্যম।

কিন্তু এই নয়া মাধ্যম এখন অনেক শিক্ষকের কাছে যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ ছাত্রছাত্রীদের নানা আচরণ। যা শ্রেণিকক্ষে বসে করার কথা তারা কল্পনাও করতে পারত না, সেটাই কিছু ছাত্রছাত্রী অনলাইন ক্লাসে করছে। কী করছে তারা? তার নানা ঘটনা তুলে ধরেছেন বিরক্ত শিক্ষক শিক্ষিকারা।

একটি ক্লাসে অনলাইন হতেই যেমন শিক্ষিকা লক্ষ্য করেন যে তাঁকে দেখে ক্লাসে উপস্থিত অনেক ছাত্রছাত্রী মুখ টিপে হাসছে। একটি ক্লাসে তো এক ছাত্রী হাজির দারুণ মেকআপ করে। ক্লাস করতে বসেছে মেকআপ করে? দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে বাবা-মাকে ডাকতে বলেন শিক্ষক। কিন্তু শিক্ষককে অবাক করে মেয়েকে কিছু না বলে বরং ছাত্রীর মা শিক্ষককে জানান এই ক্লাসটার আগেই তাঁর মেয়ে একটি মেকআপ ক্লাস করছিল। তাই মেকআপ তুলতে পারেনি!

এক ছাত্রী তো পরোটা খেতে খেতে হাজির অনলাইনে ক্লাস করতে। তার মা আবার পিছন থেকে তাকে বকছেন তাড়াতাড়ি খাওয়া শেষ করার জন্য। এরমধ্যেই ছাত্রীর এক কাকিমা এসে তাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খেয়ে আদর করে চলে যান। আর এ সবই হচ্ছে অনলাইন ক্লাস চলাকালীন। কার্যত ওপারে থাকা শিক্ষক শিক্ষিকাকে তোয়াক্কাই করছে না ছাত্রছাত্রীরা। বাদ যাচ্ছেন না বাড়ির লোকজনও।

এক ছাত্র আবার একটি গেঞ্জি পরে দাঁত মাজতে মাজতে হাজির অনলাইনে। মুখে ব্রাশ নিয়েই সে ক্লাস করতে থাকে। শিক্ষক শিক্ষিকাদের দাবি অনেক ছাত্রছাত্রীই স্কুলের পোশাকে অনলাইন ক্লাস করেনা। বরং তাদের পরনে থাকে নানারকম বাড়িতে পরার পোশাক।

আরও ২টি বিষয় তুলে ধরেছেন শিক্ষক শিক্ষিকারা। একটি হল ছাত্রছাত্রীদের অঙ্গভঙ্গি। অনেক ক্ষেত্রেই তারা বাড়িতে বসে ক্যামেরার সামনে অনলাইন ক্লাস করতে করতে শিক্ষক শিক্ষিকার প্রতি অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করতে থাকে। কেউ কেউ চোখ টেপে শিক্ষিকাদের।

দ্বিতীয়ত, অনেক ক্ষেত্রে আর একধাপ এগিয়ে শিক্ষিকাদের নীল ছবি দেখায় পড়ুয়ারা। এমন ঘটনায় অনলাইন ক্লাস করতে বসে তিতিবিরক্ত শিক্ষক শিক্ষিকারা। প্রতিনিয়ত তাঁদের লাঞ্ছনার শিকার হতে হচ্ছে। তবে এই ঘটনা পুরো দেশে এখনও ছড়ায়নি। উত্তরপ্রদেশের বেশ কিছু স্কুলের অনলাইন ক্লাসে এমন ঘটনা সামনে এসেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button