National

ব্যাঙ্কের লাইনে দীর্ঘ অপেক্ষা, মৃত মহিলা

মাথার ওপর প্রখর সূর্যকিরণ। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে এক সময় ওই মহিলা লুটিয়ে পড়েন রাস্তায়। দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

লকডাউনে সরকারি অর্থ সাহায্যের টাকা পড়েছিল ব্যাঙ্কে। সে খবর হওয়ার পর খুব স্বাভাবিকভাবেই ব্যাঙ্ক থেকে সেই টাকা তোলার জন্য হুড়োহুড়ি শুরু করেন প্রাপকরা। ফলে ব্যাঙ্কের সামনে বিশাল লাইন পড়ে। সেই লাইনেই দাঁড়িয়েছিলেন ৪৫ বছরের ওই মহিলা। বিশাল লাইন এঁকে বেঁকে চলে গিয়েছিল ব্যাঙ্কের দরজার দিকে। ব্যাঙ্কেও এখন সামান্য সংখ্যক মানুষকেই ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। তাঁরা বার হলে আবার ঢোকানো হচ্ছে ২-৩ জনকে। এদিকে মাথার ওপর তখন প্রখর সূর্যকিরণ। সেই লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে এক সময় ওই মহিলা লুটিয়ে পড়েন রাস্তায়। দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

ওই মহিলার মৃত্যু হয়েছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। প্রখর গরম সহ্য করতে না পেরেই এমনটা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার রামারেড্ডি ব্লকে। গত মঙ্গলবার তেলেঙ্গানা সরকার লকডাউনের সময় দরিদ্র পরিবারকে সাহায্য করতে দেড় হাজার টাকা করে তাঁদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ফেলে দেয়। সেই টাকা ব্যাঙ্কে আসার পর থেকেই টাকা তোলার জন্য দীর্ঘ লাইন পড়ে ব্যাঙ্কগুলিতে।

তেলেঙ্গানার ৭৪ লক্ষ দরিদ্র পরিবারের অ্যাকাউন্টে এই টাকা পড়ে। ফলে ব্যাঙ্কে ওই টাকা তুলতে ভিড় জমতে থাকে। রামারেড্ডি ব্লকে তেলেঙ্গানা গ্রামীণ ব্যাঙ্কের সামনেও বিশাল লাইন পড়ে। সেই লাইনেই দাঁড়িয়ে ছিলেন অঙ্গথ কমলা নামে ৪৫ বছরের ওই মহিলা।

এদিকে ওই মহিলার মৃত্যুর জন্য কংগ্রেস তেলেঙ্গানা সরকারের নীতিকেই কাঠগড়ায় চাপিয়েছে। দেড় হাজার টাকা করে পড়ার পর থেকে ব্যাঙ্কের সামনে দীর্ঘ লাইনই পড়ছে না, সেখানে সামাজিক দূরত্বও মানা হচ্ছেনা বলে অভিযোগ সামনে এসেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button