National

স্ত্রীর আনা বিরিয়ানি না পেয়ে হাসপাতালের জানালা ভাঙলেন করোনা রোগী

স্ত্রীর রান্না করা বিরিয়ানি তাঁর প্রিয়। স্বামীর সেই ফরমাইস মেনে স্ত্রী বিরিয়ানি নিয়ে স্বামীকে দিতে হাসপাতালে হাজির হন। কিন্তু স্বামীকে সেই খাবার দেওয়া হয়নি।

করোনা পজিটিভ হিসাবে পাওয়া গিয়েছিল তাঁকে। ফলে ২৭ বছরের ওই যুবককে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানেই দিন কাটছিল তাঁর। চিকিৎসাও চলছিল। এরমধ্যেই করোনা সংক্রমণের শিকার ওই যুবক ফোনে স্ত্রীকে তাঁর জন্য বিরিয়ানি আনতে বলেন।

তাঁর স্ত্রীর রান্না করা বিরিয়ানি তাঁর প্রিয়। স্বামীর সেই ফরমাইস মেনে স্ত্রী বিরিয়ানি তৈরি করে নিয়ে স্বামীকে দিতে হাসপাতালে হাজির হন। কিন্তু তাঁকে সেই খাবার দিতে দেওয়া হয়নি।

করোনা রোগীকে এমন ধরনের খাবার দেওয়া যাবেনা বলে জানিয়ে দেন হাসপাতালের কর্মীরা। বাইরে থেকে বিরিয়ানি এভাবে তাঁকে দেওয়া যাবেনা একথা কানে যায় ওই রোগীর। স্ত্রী রান্না করে বিরিয়ানি আনা সত্ত্বেও তা তাঁকে খেতে না দেওয়ায় প্রচণ্ড রেগে যান ওই যুবক। রেগে হাসপাতালের দেওয়ালে টাঙানো একটি অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্রের সিলিন্ডার টেনে খুলে নেনে তিনি। তারপর তা ছুঁড়ে দেন তাঁর ঘরের জানালার দিকে।

অগ্নিনির্বাপণ সিলিন্ডারের সজোর ধাক্কায় জানলায় লাগানো শিক ভেঙে পড়ে যায়। জানালায় বিশাল ফাঁক তৈরি হয়। এরপর হাসপাতালের কর্মীরা ওই রোগীকে কোনোক্রমে শান্ত করেন।


এদিকে এমন ঘটনায় হাসপাতালে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। ওই রোগীর বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার চেন্নাই-এর ইএসআই হাসপাতালে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button