National

করোনা ঠেকানোর কবচ বেচে শ্রীঘরে বাবা

লোকজন যে আসছিলেন না তা নয়। বাবার দাবি মেনে নিয়ে কবচও কিনছিলেন। দামও বেশি নয়। ১১ টাকা। ওই টাকাটা খরচ করে যদি করোনাকে নিজের থেকে দূরে রাখা যায় তাহলে মন্দ কি! এমনই ভাবনা থেকে টুকটাক বিক্রি দিয়ে জমেও উঠেছিল ব্যবসা। কিন্তু বিষয়টি চোখে পড়ে যায় এক স্বাস্থ্য আধিকারিকের। তিনিই পুলিশে খবর দেন। তারপরই পুলিশ এসে পাকড়াও করে ওই স্বঘোষিত বাবাকে।

সারা দেশ জুড়েই এখন করোনা উদ্বেগ বাড়ছে। এই বাজারে ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমে পড়েছে কিছু মানুষ। সাধারণ মানুষের চিন্তাকে কাজে লাগিয়ে চলছে দেদার অসাধু ব্যবসা। করোনা ওয়ালে বাবা-র ঘটনাও সেরকমই। বড় করে ফ্লেক্স টাঙিয়ে নিজেকে করোনা ওয়ালে বাবা বলে দাবি করে স্বঘোষিত বাবা জানিয়ে দিয়েছিল যে তার কাছে এমন এক কবচ রয়েছে যা ধারণ করলে আর করোনা হবে না। করোনা থেকে নিজেকে দূরে রাখতে সেটাই বিশ্বাস করতে শুরু করেছিলেন অনেকে।

বিশ্বজুড়ে করোনা ঠেকানোর পথ খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা। টিকা আবিষ্কার করতে এখনও ১ বছর কম করে লাগবে বলে জানানো হচ্ছে। সেখানে করোনা ওয়ালে বাবা-র কবচ করোনা ঠেকাবে! বিশ্বাস কিন্তু কিছু মানুষ করছিলেন। পুলিশ ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে ঠগবাজির মামলা রুজু করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে লখনউ শহরে। যে শহরে এখনও পর্যন্ত করোনা হয়েছে ২ জনের। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button