National

গুলি করে কেক কাটল যুবক, বন্ধুরা গাইল হ্যাপি বার্থডে

কোনও ঘর নয়। কোনও সুসজ্জিত টেবিলের ওপর রাখা কেক নয়। চারধারে জ্বলছে না কোনও মোমবাতি। একদম রাস্তার মাঝখান। সেখানেই বেশ কয়েকজন যুবক তখন উল্লাসে মাতোয়ারা। রাস্তার মাঝখানে বাক্স খুলে বসানো হয়েছে একটা কেক। তাদেরই একজনের জন্মদিন। এবার কেক কাটার পালা।

সকলেই জানেন কেক কাটার ছুরি দিয়ে যত্ন করে কেক কাটে যার জন্মদিন সে। এক্ষেত্রে হল একটু অন্যরকম। উদ্দাম উল্লাসে মাতোয়ারা ‘বার্থডে বয়’ বার করল একটা পিস্তল। তারপর গুলি করল কেক লক্ষ্য করে। বন্ধুরা সকলে গেয়ে উঠল হ্যাপি বার্থডে গান। এক উদ্দাম আনন্দে মেতে উঠল তারা। একে অপরের ওপর উল্লাসে লুটিয়ে পড়ল। এই হাড়হিম করা ভিডিওটি এখন ইন্টারনেটে ভাইরাল। যা নিয়ে নড়ে চড়ে বসেছে খোদ পুলিশও।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বাগপত জেলার সরুরপুর খেরকি গ্রামে। এখানেই এক যুবক তার জন্মদিনের কেক কেটেছে গুলি চালিয়ে। পরনে জিনস, কালো টিশার্ট, মুখে দাড়ি, হাতে পিস্তল। এই যুবককে আপাতত খুঁজছে পুলিশ। কারণ ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর পুলিশেরও নজরে পড়েছে সেটি।

পুলিশের দাবি, যে পিস্তল নিয়ে প্রকাশ্য রাস্তায় এই কাণ্ড ঘটেছে তা দিশি পিস্তল। যার লাইসেন্স হয়না। বেআইনি পিস্তল ব্যবহারের জন্য ওই যুবককে খুঁজছে তারা। অনেক বন্ধুবান্ধব নিয়ে তার এই উদ্দাম কাণ্ড রীতিমত হৈচৈ ফেলে দিয়েছে। অনেকেই ভিডিও দেখার পর আতঙ্কিত। প্রকাশ্য রাস্তায় এমন কাণ্ড হতে পারে তা অনেকের কল্পনারও বাইরে।


উত্তরপ্রদেশ হল দেশের মধ্যে এমন এক রাজ্য যেখানে সবচেয়ে বেশি বন্দুকের লাইসেন্স রয়েছে। আর ওই রাজ্যেই রয়েছে তার চেয়ে ঢের গুন বেশি দিশি বন্দুক। যার লাইসেন্স নেই। এমন উদ্দাম আনন্দের জন্মদিন পালনের ছবি সকলকে কেবল অবাক করেনি। আতঙ্কিতও করেছে। কারণ এভাবে প্রকাশ্য রাস্তায় গুলি করে কেক কেটে যারা আনন্দ করতে পারে তারা আর কী কী করতে পারে তা কল্পনা করেই শিউরে উঠছেন অনেকে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button