Entertainment

এডিটে বাদ দেওয়া ফুটেজেই নতুন সিনেমা হয়ে যেত, নাসিরুদ্দিনের মুখে অজানা গল্প

এডিট টেবিলে সিনেমার শ্যুটিংয়ের যে অংশ কেটে ফেলা হয় তা দিয়ে একটা নতুন সিনেমা তৈরি হয়ে যেত। তাঁর বিখ্যাত সিনেমা নিয়ে বললেন নাসিরুদ্দিন শাহ।

সিনেমার শ্যুটিং হওয়ার পর তা এডিট করা হয়। এডিট টেবিলে শ্যুটিং করা ফুটেজের কিছু বাদ দিয়ে দেওয়া হয়। সব শেষে চূড়ান্ত সিনেমাটি রিলিজের জন্য তৈরি করা হয়। এটাই পদ্ধতি।

তাই যা শ্যুটিং হল তার পুরোটা কখনওই সিনেমায় দেখানো হয়না। কিছু বাদ দেওয়া হয়। তবে তা এতটাও নয় যে একটা গোটা সিনেমা তৈরি হয়ে যাবে।

এছাড়া এডিটে বাদ দেওয়া অংশ আদপে অপ্রয়োজনীয় অংশই বেশি হয়। কিন্তু নাসিরুদ্দিন শাহর মতে, তাঁর অভিনীত এক বিখ্যাত সিনেমায় এত শ্যুটিং করা হয়েছিল যে এডিট টেবিলে হৃদয়হীনভাবে সিনেমার পরিচালক কুন্দন শাহ বহু অংশ কেটে ফেলে দেন। অথচ যে অংশগুলি ফেলা হয় তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ শট ছিল।

এমন সব অংশ বাদ দেওয়া হয় সবটা যোগ করলে বাদ দেওয়া অংশ দিয়ে দিব্যি একটা ভাল সিনেমা তৈরি হয়ে যেত। এমনটা সচরাচর হয়না।


কিন্তু ‘জানে ভি দো ইয়ারোঁ’ সিনেমার পরিচালক কুন্দন শাহ প্রচুর ফুটেজ তোলেন সিনেমার জন্য। কিন্তু তাঁর মাথায় সিনেমার গল্পটি এতটাই পরিস্কারভাবে ছিল যে তিনি ওভাবে যথেচ্ছ অংশ ফেলে দিয়েও একটা কালজয়ী সিনেমা বানিয়ে ফেলেন।

নাসিরুদ্দিনের মতে, তাঁরই প্রথমে ওই সিনেমায় অভিনয় করতে গিয়ে মনে হয়েছিল এমন বোকার মত সিনেমা আগে তৈরি হয়নি। কিন্তু পরে নাসিরুদ্দিন শাহ বুঝতে পারেন সিনেমাটি কি সুন্দর একটি কাহিনি বলছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button