SciTech

মঙ্গলগ্রহে খোলা বইয়েরও দেখা পায় নাসার যান

নাসার যান কিউরিওসিটি মঙ্গলের বুকে একটি খোলা বইয়েরও দেখা পেয়েছিল। যেন কেউ বই খুলে রেখেছে। যা এখনও অবাক করে অনেককে।

মঙ্গলের বুকে নানা অদ্ভুত কিছুর দেখা পেয়েছে নাসার যান। ছবি তুলেছে। পাঠিয়ে দিয়েছে বিজ্ঞানীদের কাছে। যা দেখে তাঁরাও অবাক হয়েছেন। বিশ্ববাসীও সে ছবি দেখে হতবাক হয়ে গেছেন। মঙ্গলের বুকে একবার খোলা বইয়েরও দেখা পায় নাসার যান কিউরিওসিটি।

বই পড়ার সময় বইকে অর্ধেকের একটু বেশি খোলা হয়। তারপর সেই অবস্থায় পড়া হয়ে থাকে। এই যে অনেকটাই খোলা দুধার সহ বইটি দেখা যায়, তার মত হুবহু একটি পাথরের দেখা পাওয়া যায় মঙ্গলে। সেই পাথরটির নাম রাখা হয় টেরা ফার্মে।

একদম খোলা বইয়ের মত সেই পাথর দেখে মনে হবে যেন বই খুলে রাখা আছে। আবার এমনও মনে হতে পারে যে বই খুলে রেখে পড়ার জন্য এই পাথরের স্ট্যান্ডটি কেউ যত্ন করে তৈরি করেছেন। যাতে সেখানে দিব্যি বই খুলে রেখে পড়া যায়। এমন এক আজব দর্শন পাথর এখনও মঙ্গলের অন্যতম আশ্চর্য।

এমন সুন্দর করে খোলা বইয়ের চেহারা এল কোথা থেকে? বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এটা একটা সময় মঙ্গলের বুকে বয়ে যাওয়া নদীর জলের ফলে সৃষ্টি হয়েছে।


নদীর জলে পাথর ক্ষয়ে গিয়ে নানাধরনের রূপ নিত। তাই মঙ্গলগ্রহে নানা মাপের এবং নানা রূপের পাথর দেখতে পাওয়া যায়।

তারপর যখন নদী উধাও হল মঙ্গলের বুক থেকে, তখন হাওয়াও পাথরে কিছু ক্ষয় তৈরি করে পাথরগুলিকে নানা চেহারা দেয়। এভাবেই তৈরি হয়েছে এই খোলা বইয়ের মত পাথর বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button