SciTech

মহাকাশে খোঁজ মিলল অন্য ক্ষমতাসম্পন্ন দৈত্যদের, হতবাক বিজ্ঞানীরা

মহাকাশ যে কতটা রহস্য ঘেরা তা প্রতিদিন বিজ্ঞানীরা তো বটেই, এমনটি নানা প্রবন্ধের দৌলতে সাধারণ মানুষও টের পাচ্ছেন। এবার খোঁজ মিলল অন্য ক্ষমতাসম্পন্ন দৈত্যদের।

মহাকাশ গবেষণা এখন উন্নত প্রযুক্তির হাত ধরে তরতরিয়ে এগিয়ে চলেছে। রহস্যে ঘেরা অনন্ত মহাকাশের কথা তাই ক্রমে জানতে পারছেন বিজ্ঞানীরা। অতিশক্তিশালী সব যন্ত্রের ব্যবহার তাঁদের মহাকাশ চেনাটা অনেক সহজ করে দিচ্ছে।

অবশ্যই তাঁদের হতবাকও করছে। কারণ এমন সব কথা তাঁরা জানতে পারছেন যা তাঁদের ধারনার একেবারে বাইরে ছিল। ফলে মহাকাশ সম্বন্ধে এতদিনের পরিচিত ধারনাও অনেক সময় আমূল বদলে যাচ্ছে।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

নতুন নতুন সব আবিষ্কার সামনে আসছে। যেমন সৌরমণ্ডল যে নক্ষত্রপুঞ্জে রয়েছে সেই মিল্কিওয়ে বা আকাশগঙ্গার পিছনে উঁকি দিতেই খবর পাওয়া গেল একাধিক দৈত্যের। দৈত্য নক্ষত্রের।

যা প্রতিবেশি নক্ষত্রপুঞ্জের সদস্য। এই নক্ষত্রগুলি অত্যন্ত উত্তপ্ত অবস্থায় রয়েছে। তাদের আয়তনও অতি বিশাল। আর যেটা সবচেয়ে বেশি চমকে দিয়েছে বিজ্ঞানীদের তা হল তাদের চৌম্বকীয় ক্ষেত্র।

এই নক্ষত্রদের চৌম্বক নক্ষত্র হিসাবেই দেখছেন বিজ্ঞানীরা। তাদের চৌম্বকীয় ক্ষমতার কথা জানতে পেরে রীতিমত চমকিত বিজ্ঞানীরা। এতে কি জানতে পারছেন বিজ্ঞানীরা?

এই অতিকায় নক্ষত্রগুলি অনেকটাই নবীন। তাদের চৌম্বকীয় ক্ষমতাও অতীব। যা পরীক্ষা করে বিজ্ঞানীরা মহাবিশ্বের প্রথমদিকের অবস্থা সম্বন্ধে ধারনা পাওয়ার চেষ্টা করছেন।

জটিল পদ্ধতি হলেও এই দৈত্যাকার নক্ষত্রগুলি ও তাদের চৌম্বকীয় ক্ষমতা মহাবিশ্বের প্রথমাবস্থার কথা আরও পরিস্কার করে জানতে বিজ্ঞানীদের সাহায্য করবে। অন্তত তাঁরা তাই মনে করছেন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *