National

মাতঙ্গিনী হাজরা অসমের, লালকেল্লার ভাষণে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে তুঙ্গে বিতর্ক

স্বাধীনতা দিবসের সকালে পতাকা উত্তোলনের পর প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের কথা বলতে গিয়ে মাতঙ্গিনী হাজরাকে অসমের বাসিন্দা বলেন। যা নিয়ে সোচ্চার তৃণমূল।

দেশের ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের সকালে লালকেল্লা থেকে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই নিয়ে ৮ বার এই দিনটায় পতাকা উত্তোলন করলেন তিনি।

এদিন পতাকা উত্তোলনের পর প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ শুনতে উদগ্রীব হয়ে থাকেন দেশবাসী। প্রধানমন্ত্রী লালকেল্লা থেকে কি ঘোষণা করেন সেদিকে তাকিয়ে থাকেন সকলে।

সেই ভাষণেই এদিন পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুকের বীরাঙ্গনা নারী মাতঙ্গিনী হাজরাকে অসমের বলে ব্যাখ্যা করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক। স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নেওয়া বীর নারীদের কথা বলতে গিয়ে তিনি মাতঙ্গিনী হাজরাকে অসমের বলে বসেন।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের পরই তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ ট্যুইট করে তোপ দাগেন। তিনি ট্যুইটে লেখেন, অন্যের লিখে দেওয়া ভাষণ পড়ে নাটক করেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর নিজের কোনও আবেগ নেই। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে দাবি করেন কুণালবাবু।

কুণালবাবু এদিন তাঁর ট্যুইটে নাম না করে আরও দাবি করেন বিজেপির পূর্ব মেদিনীপুরের গদ্দার-এরও ক্ষমা চেয়ে বিবৃতি দেওয়া উচিত।

এই ঘটনার জেরে তৈরি হওয়া বিতর্কে জল ঢালতে গিয়ে রাজ্যে বিজেপি নেতৃত্ব একে ছোটখাটো ভুল হিসাবেই দেখছে। রাজ্য বিজেপির সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে ছোটখাটো ভুল বলে বিষয়টিকে বড় করার চেষ্টা হচ্ছে বলে দাবি করেন। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করেছে রাজ্য কংগ্রেস নেতৃত্বও।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button