National

যত নষ্টের গোড়া, তাই আইনসভা চত্বর জুড়ে নিষিদ্ধ হল ঝর্নাকলম

একটা সময় ছিল যখন ডট পেন মানুষ চোখেই দেখেননি। তখন কালি পেন বা ঝর্নাকলমই ছিল ভরসা। সেটাই এবার নিষিদ্ধ হয়ে গেল এক সরকারি চত্বরে।

পেন বা কলম বলতে যা বোঝাত তা ছিল সহজ কথায় কালি পেন। সেটাই ছিল বহুল প্রচলিত। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে সরকারি, বেসরকারি ক্ষেত্রে যাবতীয় লেখার কাজে কালি পেনই ছিল একমাত্র ভরসা।

কিন্তু সেই কালি পেন নিয়ে আইনসভায় প্রবেশই বন্ধ করে দিল একটি রাজ্য। কালি পেন কেবল লেখার মাধ্যম নয়, তা একটি ঐতিহ্যও।

যতই ডট পেন বাজার দখল করুক এখনও কালি পেনের একটা অন্য মর্যাদা আছে। আভিজাত্য আছে। ডট পেন কখনওই সেই আসনে বসতে পারবেনা। সেই কালি পেন এমন কি দোষের ভাগী হল যে তা নিয়ে আইনসভায় প্রবেশই নিষিদ্ধ করে দিল মহারাষ্ট্র?

মহারাষ্ট্র বিধানসভা চত্বরে ঝর্নাকলম নিষিদ্ধ হওয়ার পিছনে অবশ্য অন্য কারণ রয়েছে। এক মন্ত্রীকে কালি ছিটিয়ে আক্রমণের ঘটনা ঘটে এই আইনসভাতেই। তারপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেউ মহারাষ্ট্র আইনসভা চত্বরে তরল কালির পেন নিয়ে ঢুকতে পারবেন না।


যদিও সংবাদ সংস্থাকে কয়েকজন মন্ত্রী জানিয়েছেন, এই নিয়ম সকলের জন্য প্রযোজ্য হলেও ছাড় রয়েছে বিধায়ক ও লেজিসলেটিভ কাউন্সিলের প্রতিনিধিদের জন্য। তাঁরা চাইলে কালি পেন নিয়ে ঢুকতে পারবেন। ব্যবহারও করতে পারবেন।

কিন্তু এঁরা ছাড়া আর যাঁকেই এরপর থেকে চত্বরে কালি পেন সহ দেখা যাবে তাঁকে গারদের পিছনেও পাঠানো হতে পারে। এতটাই কঠোরভাবে বলবত হয়েছে এই নিষেধাজ্ঞা। গায়ে কালি ছিটিয়ে প্রতিবাদ যাতে আর না ঘটতে পারে সেজন্যই এই বন্দোবস্ত। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button