Lifestyle

গায়ের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পেতে বড় ভরসা সবুজ

শরীরে দুর্গন্ধ তৈরি হয় প্রধানত ঘাম থেকে। তাছাড়া ব্যাকটেরিয়া থেকেও দুর্গন্ধ জন্ম নেয়। এই অস্বস্তিকর দুর্গন্ধ থেকে নিজেকে বাঁচাতে সবুজই বড় ভরসা।

কোনও মানুষই চান না তাঁর গা থেকে দুর্গন্ধ বার হোক। কিন্তু এই গরমের দিনে ঘামে ভিজে থাকা শরীর থেকে খারাপ গন্ধ বার হয়। কারও বেশি হয় তো কারও কম।

অনেকেই এজন্য সুগন্ধি মেখে বাড়ি থেকে বার হওয়া পছন্দ করেন। কিন্তু তার গন্ধ অনেক সময় দ্রুত হারিয়ে যায়। ঘর্মাক্ত গা থেকে দুর্গন্ধ বার হতেই থাকে। এটা সামাজিক জীবনে অস্বস্তিকরও। নিজের জন্যও এবং পাশে থাকা মানুষটার জন্যও।

এই দুর্গন্ধের একটা বড় কারণ খাওয়াদাওয়া। যাঁরা পেঁয়াজ, রসুন, লঙ্কা জাতীয় খাবার বা অতিরিক্ত প্রোটিন সম্পন্ন খাবার বেশি খান তাঁদের শরীর থেকে বার হওয়া দুর্গন্ধ চড়া হয়। তাছাড়া স্থূল চেহারার মানুষের গায়ের গন্ধ বেশি কড়া হয়। ঘামের সঙ্গে চামড়ার উপরিভাগে থাকা ব্যাকটেরিয়া মিশেও দুর্গন্ধ তৈরি করে।

এই দুর্গন্ধ অনেককে লজ্জায় ফেলে দেয় সমাজে। এই দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী উপাদানগুলিকে বিনষ্ট করতে সবুজ শাকপাতার জুড়ি নেই। সে লেটুস থেকে পালং এবং এমন সবুজ পাতা খাবারে রাখলে তা শরীরের দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী উপাদানগুলিকে অনেকটাই নষ্ট করে দেয়।

পাতায় থাকা ক্লোরোফিল এই কাজে সিদ্ধহস্ত। এছাড়া গ্রিন টি বা পুদিনা পাতার চা খেলে গায়ের দুর্গন্ধ কমে। কড়াইশুঁটি, বিনসের মত খাবার খাদ্য তালিকায় রাখলে তাও শরীরের দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী উপাদানগুলিকে অনেকটাই নষ্ট করে দিতে পারে। ফলে গায়ের দুর্গন্ধ কমাতে সবুজের জুড়ি নেই। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.