Feature

১ দিনেরও কম সময়ে হেঁটে ঘুরে ফেলা যায় অপূর্ব দেশটি

পুরো ১ দিন লাগবে না। তার চেয়ে কম সময়ে হেঁটে একটা দেশ ঘুরে ফেলা সম্ভব। পাগলের প্রলাপ নয়। অনেকেই হেঁটে একদিনে গোটা দেশটা ঘুরে ফেলেন।


একটা শহর নয়। একটা গ্রামও নয়। গোটা একটা দেশ। যার রাজধানী রয়েছে। অনেক কিছু দেখার রয়েছে। নিজস্ব সংস্কৃতি রয়েছে। জমি রয়েছে। একটা স্বাধীন রাষ্ট্রের মর্যাদা রয়েছে। এমন একটা দেশ কিনা পায়ে হেঁটে একদিনেরও কম সময়ে ঘুরে ফেলা সম্ভব?


কিছুটা অস্বাভাবিক শোনালেও এটাই কিন্তু সত্যি। পাহাড়ি দেশটা হেঁটেই ঘুরে ফেলা যায়। যেখানে রয়েছে কেল্লা, রয়েছে আল্পস পর্বতমালার সৌন্দর্য, রয়েছে অপার সবুজের সম্ভার, নীল আকাশের নিচে যেন একটা আঁকা ছবি। এতটাই সুন্দর এই দেশ।


সে দেশ এভাবে হেঁটে ঘোরা কীভাবে সম্ভব? আসলে দেশটির উত্তর প্রান্ত থেকে দক্ষিণ প্রান্ত সব মিলিয়ে ১৫ মাইল। আর পূর্ব প্রান্ত থেকে পশ্চিম প্রান্তের দূরত্ব আড়াই মাইল। ফলে দেশটা পুরোটা হেঁটে ঘুরে দেখতেও এক দিনের কম সময় লাগে।

দেশটি লিশটেনস্টাইন। একদিকে সুইৎজারল্যান্ড ও অন্যদিকে অস্ট্রিয়া দিয়ে ঘেরা এই ছোট্ট দেশটি পুরোটাই একটি স্থলভাগ বেষ্টিত দেশ। যার রাজধানীর নাম ভাদুজ।


এখানে সব মানুষ জার্মান ভাষায় কথা বলেন। সব মিলিয়ে দেশের জনসংখ্যা ৪০ হাজারের মত। বিশ্বের যে কটি অতি ক্ষুদ্র রাষ্ট্র রয়েছে, তারমধ্যে চতুর্থ স্থানে রয়েছে এই ইউরোপীয় স্বাধীন দেশটি।


সুইস ফ্রাঙ্ক হল এ দেশের মুদ্রা। লিশটেনস্টাইন দেশটিকে সুইৎজারল্যান্ডের সঙ্গে আলাদা করেছে রাইন নদী। পুরো দেশটাই কার্যত প্রকৃতির কোলে অবস্থিত।


Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *