Kolkata

দোতলায় মৃত স্ত্রী, একতলায় থাকা স্বামী জানতেন না সেকথা!

ফের কলকাতার বুকে এক বৃদ্ধার রহস্যমৃত্যুতে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল। মৃতার নাম মঞ্জু সাহা। দক্ষিণ কলকাতার সার্ভে পার্ক এলাকায় থাকতেন সত্তরোর্ধ বৃদ্ধা। দোতলায় থাকতেন তিনি। আর একতলায় তাঁর স্বামী বছর ৮৩-র গোষ্ঠবিহারী সাহা। প্রবীণ দম্পতির বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় বিকট পচা গন্ধ নাকে ঠেকে এলাকাবাসীর। উৎকট পচা গন্ধ অসহনীয় হয়ে ওঠে। সন্দেহ হওয়ায় খবর দেওয়া হয় থানায়। পুলিশ এসে শনিবার বাড়িটির দোতলা থেকে বৃদ্ধার গলাপচা দেহ উদ্ধার করে। একসঙ্গে না থাকলেও স্ত্রীর মৃত্যুর খবর ঘুণাক্ষরেও টের পেলেন না তাঁর স্বামী? পচা গন্ধে যেখানে স্থানীয়দের বমি ওঠার উপক্রম হয়েছিল, সেখানে কেন গন্ধ পেয়েও মুখ বুজে থাকলেন বৃদ্ধ? এটাই এখন ভাবাচ্ছে তদন্তকারিদের।

যদিও মৃতার স্বামীর দাবি, তিনি অসুস্থ। হাঁটা চলা করতে পারেন না। কাজের মেয়ের কাছ থেকেই উপরতলায় অসুস্থ স্ত্রীর খোঁজ নিতেন তিনি। ২ দিন ধরে কাজের মেয়ে আসেনি। তাই স্ত্রীর ব্যাপারে তিনি কিছুই জানতে পারেননি বলে দাবি প্রবীণের। তবে প্রতিবেশিদের দাবি, বৃদ্ধ অসুস্থ হতে পারেন। কিন্তু তিনি এতটাও অসুস্থ নন যে উপরতলায় গিয়ে স্ত্রীর খোঁজ নিতে পারবেননা। কারণ, রোজ সকালে তিনি দিব্যি প্রাতঃভ্রমণে যান। তাহলে এই ২ দিন ধরে দোতলায় স্ত্রী কি অবস্থায় আছে তা কেন খোঁজ নিয়ে দেখেননি ওই বৃদ্ধ? এই প্রশ্নের উত্তর এখন খুঁজে চলেছে পুলিশ। মৃতার দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। ময়ানাতদন্তের রিপোর্ট এলে কিভাবে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে তা জানার পর রহস্যের জট ছাড়ানো অনেকটা সহজ বলে মনে করছে পুলিশ।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button