Kolkata

হোটেলে যৌনকর্মী নিয়ে ঢোকা ঘিরে গণ্ডগোল, পুলিশকে শাসানি, গ্রেফতার পুলিশ আধিকারিক

হোটেলে যৌনকর্মীদের নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা, দুর্ব্যবহার, হুমকি সহ নানা অভিযোগে ২ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করল বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ। তাদরে মধ্যে ১ জন নিজেকে পুলিশ আধিকারিক বলে দাবি করেছে। অন্যজন পেশায় ব্যবসায়ী। দুজনেই গুজরাটের বাসিন্দা। পুলিশ সূত্রের খবর, বুধবার রাত ৯টা নাগাদ ২ মহিলাকে নিয়ে বেকবাগানের একটি হোটেলে ঢোকে ওই হোটেলেরই এক অতিথি। তার আগেই ৩ জন ওই হোটেলে ঘর ভাড়া নিয়েছিল। তাদেরই মধ্যে ১ জন ২ মহিলাকে নিয়ে ঢোকার চেষ্টা করলে সন্দেহ হয় হোটেল কর্মীদের। তাঁরা পথ আটকান। মহিলাদের নিয়ে ঢোকা যাবে না বলে জানান হোটেলকর্মীরা। অভিযোগ এই সময়ে ওই ব্যক্তির সঙ্গে হোটেল কর্মীদের বচসা শুরু হয়। এদিকে ২ মহিলাও ক্ষোভ উগরে দেন। পরে ওই ২ মহিলা বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে জানান তাঁরা সোনাগাছির যৌনকর্মী। ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলে তাঁদের ওই ব্যক্তি হোটেলে নিয়ে আসে। কিন্তু পরে ওই ব্যক্তি তাঁদের টাকা দেয়নি।

পুলিশ হোটেলে হাজির হয়। রয় আলোক সুকুমার ও দীপক দরিয়ানি নামে গুজরাটের বাসিন্দা ২ ব্যক্তিকে আটক করে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ। এরপর শুরু হয় রয় আলোকের শাসানি। তাও আবার খোদ পুলিশকে! সে নিজেকে গুজরাট পুলিশের ডিএসপি স্তরের আধিকারিক বলে দাবি করে। নিজেকে আইপিএস অফিসার বলে দাবি করে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ আধিকারিকের চাকরি খেয়ে নেওয়ার ভয় দেখায় সে। তার কাছ থেকে পাওয়া কার্ডেও তাকে আইপিএস বলেই উল্লেখ পাওয়া গেছে। যদিও এরপরই রয় আলোক ও দীপক দরিয়ানি নামে ২ জনকে গ্রেফতার করে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button