World

রোপওয়ে দুর্ঘটনা কেড়ে নিল ১৩টি প্রাণ, বেঁচে গেল ২ শিশু

পাহাড়ি এলাকা বা উপত্যকা পারাপারের জন্য রোপওয়ের তুলনা নেই। আবার পর্যটনেও রোপওয়ের গুরুত্ব অপরিসীম। সেই রোপওয়ে থেকেই ছিঁড়ে পড়ল কেবল কার।

২০ মিনিটের সফর। যাবে একটি হ্রদের ধার থেকে কাছের একটি পাহাড়ে। এই ২০ মিনিটের রোপওয়ে যাত্রায় পাওয়া যায় চোখ জুড়োনো প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। যা চর্মচক্ষে দেখার জন্য বহু দূর দূর থেকেই মানুষ ছুটে আসেন।

মূলত পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকে এখানে। রোপওয়েতে চড়ে এই ২০ মিনিটের সফরের জন্য উঁচিয়ে থাকেন তাঁরা।

সবুজ উপত্যকা, হ্রদের টলটলে নীল জল, নীল আকাশের বুকে অপার সৌন্দর্য উপভোগ করতে গত রবিবারও ভিড় জমেছিল ইতালির পিডমন্ট এলাকায়।

এখানেই একটি গ্রাম রয়েছে ম্যাগিওর হ্রদের গায়ে। সেই কারসিয়ানো দি স্ট্রেসা গ্রাম থেকেই যাত্রা শুরু করে এই রোপওয়ে গেছে ১ হাজার ৪৯১ মিটার উঁচু মোতারোন পাহাড়ের চূড়ায়।


সেই রোপওয়ের একটি কেবল কারের পাহাড় চূড়ায় পৌঁছতে তখন সামান্যই সময় বাকি ছিল। তখনই ঘটে দুর্ঘটনা। তার থেকে ছিঁড়ে নিচে আছড়ে পড়ে একটি কেবল কার।

মোট ১৫ জন ছিলেন সেটিতে। যার মধ্যে বেশ কয়েকজন পর্যটকও ছিলেন। অত উঁচু থেকে পড়ায় ঘটনাস্থলেই ১৩ জনের মৃত্যু হয়। আহত হলেও প্রাণে রক্ষা পায় ২ শিশু।

তাদের দ্রুত হেলিকপ্টারে করে সেখান থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button