National

৩৯ লক্ষ টিকিট বাতিল করছে রেল

১৪ এপ্রিল শেষ হয় ২১ দিনের লকডাউনের মেয়াদ। এদিনই প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দেন লকডাউন চলবে। ফলে লকডাউন ঢুকে পড়ে দ্বিতীয় পর্যায়ে।

দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই যাত্রী পরিবহণের কাজ বন্ধ করেছিল ভারতীয় রেল। তার আগে থেকেই অবশ্য ট্রেন বাতিল হওয়া শুরু হয়েছিল। তবে পুরো স্তব্ধ হয়ে যায় লকডাউনের দিন থেকে। তারপর এমন রটনা তৈরি হয় যে রেল নাকি ১৫ এপ্রিল থেকে ট্রেন চালাবে। যদিও রেলের তরফে পরে এমন কোনও সিদ্ধান্তের কথা নস্যাৎ করে জানানো হয় পুরোটাই ভুল খবর।

১৪ এপ্রিল শেষ হয় ২১ দিনের লকডাউনের মেয়াদ। এদিনই প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দেন লকডাউন চলবে। ফলে লকডাউন ঢুকে পড়ে দ্বিতীয় পর্যায়ে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা মত দেশজুড়ে লকডাউন এখন ৩ মে পর্যন্ত বর্ধিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর ভারতীয় রেলও জানিয়ে দিয়েছে ৩ মে পর্যন্ত বন্ধ কোনও যাত্রী পরিবহণ।

৩ মে পর্যন্ত প্যাসেঞ্জার, মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন বাতিল হয়েছে। কিন্তু এসব ট্রেনে বহুদিন আগেই টিকিট কেটে রেখেছিলেন অনেকে। সেসব টিকিটও তাহলে বাতিল হয়েছে। ১৫ এপ্রিল থেকে ৩ মে পর্যন্ত ট্রেন বাতিলের ফলে ৩৯ লক্ষ টিকিট বাতিল করতে হয়েছে রেলকে। যার পুরো টাকা যাত্রীরা ফেরত পাবেন।

অনলাইনে যাঁরা টিকিট কেটেছিলেন তাঁদের টিকিটের মূল্য অনলাইনেই ফেরত দেওয়া হবে। আর যাঁরা কাউন্টার থেকে টিকিট কেটেছিলেন তাঁরা টিকিটের মূল্য ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে যে কোনও সময়ে কাউন্টার থেকে ফেরত পাবেন।


রেলের তরফে জানানো হয়েছে, লকডাউনের পরও ১৫ এপ্রিল থেকে ট্রেনের টিকিট বুকিং করা হচ্ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় পর্যায়ে লকডাউন ঘোষণার পর এবার স্থির হয়েছে আর এখন কোনও আগাম বুকিং নেওয়া হবে না।

আপাতত রেললাইন ধরে কেবল ছুটবে মালগাড়ি। যা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দেবে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস, খাদ্যশস্য। কারণ যোগানে যাতে কোনও সমস্যা না হয় সেদিকে কঠোর নজর রাখছে কেন্দ্র। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button