State

বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষীদের গুলিতে মৃত বিএসএফ জওয়ান, আহত আরও ১

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত। ভারতের দিকে সীমান্ত সুরক্ষায় থাকে বিএসএফ। অন্যদিকে বাংলাদেশের সীমান্ত সুরক্ষায় থাকে বিজিবি। পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব প্রান্তের সিংহভাগই বাংলাদেশ সীমান্ত। যারমধ্যে রয়েছে মুর্শিদাবাদের কাকমারিচর। এখানেই বৃহস্পতিবার সকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের হাতে ধরা পড়েন ভারতের ৩ মৎস্যজীবী। পদ্মায় মাছ ধরার সময় কোনওভাবে তাঁরা বাংলাদেশ সীমান্তে পৌঁছে যাওয়ায় তাঁদের আটক করে বিজিবি। এঁদের মধ্যে ২ জনকে ছেড়েও দেয় বিজিবি।

এই ২ মৎস্যজীবী বিএসএফ-কে এসে জানান যে তাঁদের এক সঙ্গী এখনও বিজিবি-র হাতে বন্দি। বিষয়টির মীমাংসা করতে পদ্মা নদীর মাঝে চড়ায় নৌকা নিয়ে হাজির হন বিএসএফ-এর হেড কনস্টেবল বিজয়ভান সিং ও কনস্টেবল রাজবীর যাদব। সেখানে হাজির হয়ে তাঁদের কিছু একটা সন্দেহ হয়। দ্রুত নৌকা নিয়ে ফেরার চেষ্টা করেন তাঁরা। অভিযোগ তখনই বিজিবি তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। একটি গুলি সোজা এসে লাগে বিজয় ভান সিংয়ের মাথায়। রাজবীর যাদবের হাতে গুলি লাগে। ওই অবস্থায় কোনওক্রমে নৌকাটি নিয়ে ফিরে আসেন রাজবীর। এদিকে মাথায় গুলি লাগা বিজয় ভান সিংয়ের নৌকাতেই মৃত্যু হয়। রাজবীরকে মুর্শিদাবাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এভাবে বিএসএফ-কে লক্ষ্য করে গুলি করায় বিএসএফ প্রধান ফোন করেন বিজিবি-কে। বিষয়টি জানান। এদিকে এমন ঘটনা বিএসএফ জওয়ানরা ভাল চোখে নেননি। খবরটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকেও পৌঁছয়। যাতে সীমান্তে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোনও উত্তেজনা সৃষ্টি না হয় সেজন্য ২ দেশই তৎপর। এদিকে যে তৃতীয় মৎস্যজীবীকে বিজিবি ধরে রেখেছিল, তাঁকে ছাড়েনি তারা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *