Health

১৬ জানুয়ারি থেকে টিকাকরণ, তার আগে বাড়ছে ব্রিটেনের স্ট্রেন

অবশেষে ভারতে করোনা প্রতিষেধক টিকাকরণ চালু হচ্ছে। ১৬ জানুয়ারি থেকে টিকাকরণ চালু হচ্ছে। তার আগে চিন্তা বাড়িয়ে বাড়ছে ব্রিটেনের নয়া করোনা স্ট্রেন থেকে সংক্রমণ।

নয়াদিল্লি : ড্রাই রান হয়েছে একাধিকবার। হতে পারে ১৩ জানুয়ারি থেকে টিকাকরণ, এমনও শোনা যাচ্ছিল। কেন্দ্রীয় সরকার অবশ্য টিকাকরণ পৌষ মাস পার করেই শুরু করতে চলেছে।

মকরসংক্রান্তির পরদিন দেশ জুড়ে চালু হচ্ছে টিকাকরণ। অবশ্যই প্রথমে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকাকরণ হবে। তারপর হবে ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের।

তারপর হবে ৫০ বছরের উর্ধ্বে বয়সের এবং কোমর্বিডিটি থাকা মানুষজনের। আর এভাবেই ধাপে ধাপে দেশে টিকাকরণ গতি নেবে। করোনাকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে ভারতে চলবে এই কর্মকাণ্ড।

তার আগে অবশ্য নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে ব্রিটেনে পাওয়া নতুন করোনা স্ট্রেনটি। যা ভারতেও আগেই ঢুকেছে। আর তা একটু একটু করে ছড়াচ্ছে।

এখনও পর্যন্ত প্রায় ৯০ জনের দেহে এই স্ট্রেনের খোঁজ পাওয়া গেছে। গত সেপ্টেম্বর মাসে ব্রিটেনে এই নয়া স্ট্রেনের খোঁজ মেলে। তারপর ব্রিটেন সরকার এ বিষয়ে বিশ্বকে অবহিত করে। জানায় এই স্ট্রেন ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রমণের ক্ষমতা ধরে।

স্বভাবতই আতঙ্ক ছড়ায় বিশ্বে। বহু দেশ ব্রিটেন থেকে উড়ান আসা যাওয়া বন্ধ করে। তা সত্ত্বেও শেষ রক্ষা হয়নি অনেক দেশেই। সেখানে ব্রিটেনের করোনা স্ট্রেন ঢুকেই পড়েছে। যার মধ্যে ভারতও রয়েছে।

কলকাতা সহ ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ব্রিটেনের করোনা স্ট্রেনের খোঁজ মিলেছে। এদিকে এই স্ট্রেনের প্রভাবে খোদ ব্রিটেনের পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে।

সেখানে প্রতি ৩০ জনে ১ জন এখন এই নতুন স্ট্রেনে কাবু হচ্ছেন। ব্রিটেনের বরিস জনসন সরকার ব্রিটেনবাসীকে ঘরেই থাকার পরামর্শ দিয়েছে। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে না বার হওয়াই ভাল বলে জানিয়ে দিয়েছে সরকার।

ব্রিটেনে অবশ্য টিকাকরণও চালু হয়ে গেছে। তা সত্ত্বেও এক লকডাউন চিত্র স্পষ্ট নজর কাড়ছে সেখানে। প্রায় সবকিছুই বন্ধ হয়েছে নতুন করে।

ভারতেও এই স্ট্রেনের প্রবেশ ঘিরে একটা চিন্তা রয়েছে। বিষয়টির দিকে কড়া নজর রাখছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। সতর্ক করা হয়েছে সব রাজ্যকেও। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button