Health

বর্ষশেষে খুশির খবর, ছাড়পত্র পেল বহু প্রতীক্ষিত টিকা

অবশেষে পাওয়া গেল সেই খবর। যার জন্য বিশ্ববাসী সবচেয়ে বেশি অপেক্ষা করেছেন। সেই অক্সফোর্ডের তৈরি টিকা এবার পেল ছাড়পত্র।

লন্ডন : করোনা ছড়ানোর পর বিশ্বজুড়ে শুরু হয় টিকা তৈরির প্রচেষ্টা। সেই দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে ছিল ব্রিটেনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা-র যৌথ উদ্যোগে তৈরি হতে চলা টিকা। এই টিকাটি কবে আসবে তা নিয়ে নিয়মিত খবরও রাখছিলেন অনেকে।

অবশ্যই এটার সঙ্গে ভারতের কোভ্যাক্সিন তৈরির চেষ্টা বা আমেরিকার ফাইজার বা মডার্নার তৈরি টিকা নিয়েও বিশ্ব আশাবাদী ছিল। কিন্তু কম দামের কথা মাথায় রেখেই অনেকেই অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ে বেশি উৎসাহী ছিলেন।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা-র এই টিকাটিতে তার ট্রায়ালের তৃতীয় ধাপের শেষ পর্যায়ে সামান্য কিছু খুঁত মেলে। তারপরই তা ফের একবার খতিয়ে দেখার কথা জানানো হয়। ফলে পিছিয়ে যায় তার ছাড়পত্র পাওয়া।

এরমধ্যেই ব্রিটেনে চালু হয় অন্য একটি টিকা। ব্রিটিশ সরকার আর দেরি না করে তাদের দেশে আমেরিকার ফাইজারের তৈরি টিকা প্রদান শুরু করে দেয়।


অবশেষে বুধবার ব্রিটেনে ছাড়পত্র পেয়ে গেল তাদের দেশের তৈরি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা-র টিকা। অতএব নতুন বছরে ব্রিটেন তার দেশবাসীকে ২টি টিকা প্রদান করতে পারবে।

ইতিমধ্যেই অনেক ব্রিটেনবাসীকে ফাইজারের টিকা দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে এবার অক্সফোর্ডের টিকাও দেওয়া শুরু হয়ে যাবে। যা জানা যাচ্ছে তাতে আগামী ৪ জানুয়ারি থেকেই ব্রিটেনে অক্সফোর্ডের টিকা দেওয়া শুরু হয়ে যাবে।

এই টিকা আসায় খুশি ব্যক্ত করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ব্রিটিশ সরকার ইতিমধ্যেই ১০ কোটি টিকার অর্ডার দিয়েছে অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে।

ব্রিটেনেই মিলেছে করোনার নতুন স্ট্রেনের খোঁজ। এটি ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রমণ ক্ষমতা যুক্ত। এই অবস্থায় ব্রিটেনে ২টি টিকা সাধারণের জন্য কাজে লাগানোর পর্যায়ে থাকায় ব্রিটেনবাসী আশার আলো দেখছেন।

এদিকে ব্রিটেন ছাড়পত্র দেওয়ার পর অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা-র টিকা ভারত সহ অন্যান্য দেশেও এবার দ্রুত ছাড়পত্র পেয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button